বার্তাবাংলা ডেস্ক »

ফেসবুকে কারও মন্তব্য পছন্দ না হলে সে মন্তব্যকে এখন ডাউনভোট দিতে পারবেন। ফেসবুক ব্যবহারকারীদের নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া জানানোর সুযোগ দিতে এ ফিচার চালু করছে ফেসবুক। ধীরে ধীরে সব ব্যবহারকারী এ ফিচার ব্যবহারের সুযোগ পাবেন। ডাউনভোট ফিচারটি ফেসবুক ব্যবহারকারীদের দীর্ঘদিনের প্রত্যাশিত ডিজলাইক বাটন নয়।

কোনো মন্তব্য অপছন্দ হলে, তা ডাউনভোট বাটনে চাপ দিতে পারবেন ব্যবহারকারী। এতে ওই মন্তব্য আর তিনি প্রকাশ্যে দেখবেন না, তবে অন্যরা দেখতে পাবেন। মন্তব্যকে ডাউনভোট দিলে তা আপত্তিকর, বিভ্রান্তিকর বা বিষয়বহির্ভূত কি না, তা জানাতে হবে ফেসবুককে।

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাস থেকে এ বাটন নিয়ে পরীক্ষা চালাচ্ছিল ফেসবুক। এবারে বাটনটি সবার জন্য উন্মুক্ত করছে।

আজ সোমবার প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট দ্য নেক্সট ওয়েবের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ফেসবুকে মন্তব্যের মানের উন্নতি করতে এ বাটন আনা হচ্ছে।

ফেসবুকে ২০০৯ সালে ‘লাইক’ বাটন চালুর পর থেকেই অনেকেই ডিজলাইক বাটনটি চাইছিলেন। কিন্তু ফেসবুক কখনো ওই বাটন আনেনি। ফেসবুকে কোনো বিষয় পছন্দ হলে বা বন্ধুর পোস্ট করা বার্তা, ছবি বা অন্য কোনো বিষয়ের অনুমোদন প্রকাশে লাইক বাটনটি ব্যবহার করা হয়।

ফেসবুকে বর্তমানে ভুয়া খবর ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে সন্দেহজনক কনটেন্টগুলো কম দেখানো হচ্ছে। ভুয়া খবর ঠেকানোর নতুন পরিকল্পনা অনুযায়ী, নিউজ ফিডে ব্যবহারকারীদের চাহিদা অনুযায়ী খবর দেখানোর ক্ষেত্রে সেন্সরশিপ এবং সংবেদনশীলতার একটি সামঞ্জস্য রাখার চেষ্টা চালাচ্ছে।

প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট টেকক্রাঞ্চের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ফেসবুকের থার্ড পার্টি ফ্যাক্ট চেকারস দিয়ে যখন কোনো খবরের সত্যতা পরীক্ষা করা হয়, তখন ওই পোস্টের আকার কমিয়ে দেয় ফেসবুক।

প্রতিষ্ঠানটির একজন মুখপাত্র বলেছেন, ফ্যাক্ট পরীক্ষা করে ভুয়া বলে মনে হলে তা নিউজ ফিডে দেখানো কম হয়।

নতুন প্রকাশ করা লেখাগুলো এখন ফেসবুকের মেশিন লার্নিং প্রযুক্তি দিয়ে স্ক্যান করে সত্যতা নির্ণয় করা হচ্ছে। তথ্যসূত্র: আইএএনএস।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »