বার্তাবাংলা ডেস্ক »

ইউরোপীয় ইউনিয়নের অন্তর্ভূক্ত দেশগুলোতে ১৬ বছরের কম বয়সী কেউ হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করতে পারবে না। ইউরোপের বিভিন্ন দেশে ১৬ বছরের কম বয়সীদের জন্য নিজেদের প্ল্যাটফর্ম ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা আনতে চলেছে বার্তা আদান-প্রদানে বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয় প্রতিষ্ঠানটি।

হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারে সর্বনিম্ন বয়সসীমা ১৩ বছর। কিন্তু ইউরোপে তথ্যের গোপনীয়তা বিধানের নতুন নির্দেশনা অনুযায়া আগামী মে মাস থেকে নিজেদের নীতিমালায় পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপ।

আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই যে কেউ হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করার আগে তাদের বয়স নিশ্চিত করতে হবে। তবে ব্যবহারকারীদের প্রকৃত বয়স কিভাবে যাচাই করা হবে সে বিষয়টি এখনও নিশ্চিত নয়।

আগামী ২৫ মে ইউরোপীয় ইউনিয়নের জেনারেল ডেটা প্রটেকশন রেগুলেশন (জিডিপিআর) কার্যকর হবে। এর মাধ্যমে বিভিন্ন কোম্পানী কিভাবে তথ্য ব্যবহার করবে সে বিষয়ে জানানো হবে। ব্যবহারকারীদের নিজেদের ব্যক্তিগত তথ্য মুছে ফেলার অধিকার রয়েছে। নিজেদের ব্যক্তিগত তথ্য তারা নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন।

ব্যবসায়িক উদ্দেশে যেন শিশুদের ব্যক্তিগত তথ্য ব্যবহার করা না যায় এবং তাদের তথ্য ব্যবহার করে যেন কোনো প্রোফাইল তৈরি করা না যায় সে বিষয়ে শিশুদের সুরক্ষায় নির্দিষ্ট ব্যবস্থা অন্তর্ভূক্ত থাকবে। তবে ইউরোপের বাইরে বিশ্বের অন্যান্য দেশে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারে সর্বনিম্ন বয়সসীমা ১৩তেই রাখার পরিকল্পনা রয়েছে সংস্থাটির।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »