বার্তাবাংলা ডেস্ক »

রাজধানীর ফার্মগেটে সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত র‍্যাংগস প্রপার্টিজের অভ্যর্থনাকারী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী রুনি আক্তারের (২৮) ডান পায়ে অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। তাঁর পা রক্ষা পেয়েছে বলে চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন। তাঁর এ ব্যয়বহুল চিকিৎসায় প্রাথমিক পর্যায়েই লাগবে তিন লাখ টাকা।

গতকাল বুধবার রাত নয়টার দিকে রাজধানীর বেসরকারি ইবনে সিনা হসপিটালে রুনির অস্ত্রোপচার হয়। তাঁর অস্ত্রোপচার করেন অধ্যাপক ইদ্রিস আলী।

চিকিৎসকের বরাত দিয়ে রুনির সহকর্মী আহমদ আলী বলেন, রুনির পায়ের আঘাত গুরুতর। তাঁর পায়ের মাংসসহ চামড়া ছিঁড়ে গেছে। তিন ঘণ্টা ধরে তাঁর অস্ত্রোপচার হয়। তাঁর পা রক্ষা পেয়েছে। তিনি এখন আইসিইউতে আছেন। তাঁর জ্ঞান ফিরেছে। তবে তাঁর সুস্থ হতে দীর্ঘ সময় লাগবে।

রুনির সহকর্মী আহমদ আলী বলেন, রুনির চিকিৎসা বেশ ব্যয়বহুল বলে চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন। প্রাথমিক পর্যায়ে তিন লাখ টাকা প্রয়োজন। অফিসের সহকর্মীরা মিলে কিছু টাকা জোগাড় করে খরচ চালানো হচ্ছে।

গতকাল সকাল নয়টার দিকে ফার্মগেটের আনন্দ সিনেমা হলের সামনে সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হন রুনি। তাঁর ডান পায়ের হাঁটুসংলগ্ন স্থান ক্ষতবিক্ষত এবং ওই স্থান থেকে মাংস ছিঁড়ে গেছে।

ঘটনার এক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, আনন্দ সিনেমা হলের সামনে বাস থামিয়ে যাত্রী ওঠানো-নামানো হয়। সেখানে সড়কে উঁচু বিভাজক আছে। ওই বিভাজকের ওপর যাত্রীরা দাঁড়ায়। সকাল নয়টার দিকে রুনি সড়ক থেকে উঁচু বিভাজকের ওপর উঠতে যাচ্ছিলেন। এ সময় বেপরোয়া গতির নিউ ভিশন পরিবহনের একটি বাস সড়ক বিভাজক ঘেঁষে এগিয়ে আসে। বিভাজক ও বাসের মাঝে রুনির ডান পা চাপা খায়। পরে বাসচালক আবদুল মোতালেবকে আটক করে পুলিশের কাছে তুলে দেওয়া হয়।

প্রথমে রুনিকে পঙ্গু হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে তাঁকে তাঁর স্বজনেরা ইবনে সিনা হাসপাতালে নিয়ে যান।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »