বার্তাবাংলা ডেস্ক »

ভারতের অরুণাচল প্রদেশে মোবাইল ফোনে চলে আসছে চীনের নেটওয়ার্ক। লেখা উঠছে ‘?ওয়েলকাম টু চায়না’?। দেখাচ্ছে বেইজিংয়ের সময়। তাদের সময় ভারতের সময়ের থেকে আড়াই ঘণ্টা এগিয়ে। অরুণাচল প্রদেশ নিয়ে চীনের সঙ্গে দ্বন্দ্ব নতুন কিছু নয়। তবে এমন সংকট নতুন করে চিন্তায় ফেলেছে ভারতকে। সংকট এখানেই শেষ নয়।

সীমান্তের ওপারে তাতু সেনা ক্যাম্পের দিকে নজর ঘোরালেই দেখা মিলবে তিনতলা সমান বাড়ি। সেখানে নজরদারি চালাচ্ছে লাল ফৌজ। এই ক্যাম্পে পৌঁছানোর জন্য তৈরি হয়ে সুন্দর রাস্তা। সহজেই চীনা বাহিনী গাড়ি নিয়ে পৌঁছতে পারবে।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, সীমান্তের সংকীর্ণ পথ, ভাঙাচুরা রাস্তা, নির্জন এলাকায় এমন সিগন্যাল পাওয়া যাচ্ছে। লাইন অব একচুয়াল কন্ট্রোল (এলএসি) বরাবর দেখা যাচ্ছে চীনা পিপলস লিবারেশন আর্মির (পিএলএ) তাতু সামরিক কমপ্লেক্স। এর মধ্যে রয়েছে তিন তলাবিশিষ্ট ভবনও। মসৃণ সড়কের সাহায্যে সেগুলো একটির সঙ্গে অন্যটি যুক্ত।

এ বিষয়ে ভারতীয় সেনাবাহিনীর এক কর্মকর্তা বলেন, ওই এলাকায় আমাদের কোনো কানেকটিভিটি বা সংযোগ নেই। সেটা হোক সড়ক বা মোবাইল যোগাযোগ। এর ফলে সেখানে কাজ করা কঠিন হয়ে উঠছে। একজন সেনা আহত হলে তাকে উদ্ধার করা কষ্টকর। এক্ষেত্রে একটিই সড়ক আছে। তা হল তেজু থেকে কিবিতু পর্যন্ত।

তিনি জানান, চীনের সঙ্গে এই শত্রুতাপূর্ণ সম্পর্কের সময়ে যদি সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন থাকে তাহলে আমরা সেনা সদস্য ও সরঞ্জাম স্থানান্তর করতে সক্ষম হব না।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »