বার্তাবাংলা ডেস্ক »

মিয়ানমারের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের লাশিও শহরে বোমা বিস্ফোরণে স্থানীয় একটি ব্যাংকের দুই কর্মকর্তা নিহত হয়েছে। বুধবারের এ বিস্ফোরণে আহত হয়েছে আরো অন্তত ২২ জন। মিয়ানমার সেনাবাহিনী ও সরকারি কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে বৃহস্পতিবার দেশটির ইংরেজি দৈনিক দ্য ইরাবতি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

পুলিশ বলছে, লাশিও শহরে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় তদন্ত শুরু হয়েছে। তবে কারা এই হামলার সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে সেব্যাপারে কোনো সন্দেহভাজনের তথ্য দেয়নি পুলিশ। দেশটির শান রাজ্যের এই শহরটির বেশ কিছু জাতিগত বিদ্রোহীগোষ্ঠী দীর্ঘদিন ধরে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সঙ্গে লড়াই করছে।

রাজধানী নেইপিদো থেকে পুলিশের মুখপাত্র কর্নেল থেট নাইং বলেন, ‘মঙ্গলবার সন্ধ্যায় লাশিও শহরে বোমা বিস্ফোরণের ব্যাপারে আমরা এইমাত্র স্থানীয় পুলিশের একটি প্রতিবেদন হাতে পেয়েছি।’

লাশিও বিস্ফোরণের ব্যাপারে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে এক বিবৃতি দিয়েছেন দেশটির সরকারের মুখপাত্র জ্য হতে। এতে তিনি বলেন, ‘নিহত দু’জনই নারী।’

সেনাবাহিনীর এক বিবৃতিতে বিস্ফোরণে ২২ জনের আহত হওয়ার তথ্য দেয়া হয়েছে। পুলিশের আরেক মুখপাত্র কর্নেল মিও থু সোয়ে বলেছেন, ‘এখন পর্যন্ত কোনো সন্দেহভাজনকে শনাক্ত করা যায়নি। আমরা এখনো তদন্ত করছি।’

লাশিও শহরের স্থানীয় বাসিন্দা ২৭ বছর বয়সী এলওয়ে দেহনিন বলেছেন, তিনি বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে বিস্ফোরণের শব্দ শুনেছেন। এক লাখ ৭০ হাজার মানুষের শহর লাশিওর প্রাণকেন্দ্রে দেশটির আঞ্চলিক স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ভবনের কাছে অবস্থিত দুটি ব্যাংকের পাশে এই বিস্ফোরণ হয়েছে।

তিনি বলেন, আয়া ও ইয়োমা ব্যাংকের পাশে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। ভবনের জানালা ভেঙে গেছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ভবন এবং আশ-পাশের বাড়ি-ঘরের জানালাও ভেঙে পড়েছে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »