যুদ্ধাপরাধীদের বিচারে সবাইকে ধৈর্য্যের পরিচয় দিতে হবে : হাসিনা » Leading News Portal : BartaBangla.com

বার্তাবাংলা ডেস্ক »

hasina PMবার্তাবাংলা ডেস্ক :: যুদ্ধাপরাধীদের বিচার নিয়ে সবাইকে ধৈর্য্যের পরিচয় দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ৪০ বছর আগে সংঘটিত এই অপরাধের বিচার করা কঠিন কাজ উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, বিরোধী দল এ বিচারে বাধা সৃষ্টি করছে। বৃহস্পতিবার বিকালে বজলুর রহমান স্মৃতি পদক ২০১২ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী গণমাধ্যমের প্রতি গঠনমূলক সমালোচনা করারও আহ্বান জানান। মুক্তিযুদ্ধ যাদুঘর আয়োজিত সাংবাদিক বজলুর রহমান স্মৃতিপদক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী যুদ্ধাপরাধীদের বিচার প্রসঙ্গ তুলে ধরে বলেন, এ বিচার না হলে জাতি কলঙ্কমুক্ত হবে না। প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমরা যে বিচার কাজটা শুরু করেছি, এখানে আমাদের ধৈয্যের পরিচয় দিতে হবে। আমাদের অত্যান্ত চিন্তা ভাবনা করে পদক্ষেপ নিতে হবে। অনেকেই অস্থির হয়ে পড়েন, সবকিছু এক চোটেই হয়ে যাবে। এতো বছর হয়নি, আমরা ৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত মানুষিকভাবে তৈরী করার কাজটা করেছি। এবারে এসে আমরা বিচারের কাজটা শুরু করেছি।” সরকার এ বিচার শুরু করেছে এবং রায় কার্যকর করবে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, বিরোধীদল যুদ্ধাপরাধীদের পক্ষ নিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, “এখন আমাদের দায়িত্ব খুনিদের বা যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের কাজ সম্পন্ন করা। এ ক্ষেত্রে আপনারা নিশ্চয় দেখতে পাচ্ছেন কিভাবে বাধা দিয়ে যাচ্ছে। নির্বাচনে যদি ভোটের সংখ্যা দেখি জামায়াত কয়টা ভোট পেয়েছে কিন্তু তার সাথে যুক্ত হয়েছে আমাদের প্র্রধান বিরোধীদল। তাদের উদ্দেশ্যটাকি, এই যে ২৭ মার্চ স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছে বলে তিনি ইতিহাস বলে যাচ্ছিলেন আবার আপনারা লক্ষ্য করেন সেই ২৭ মার্চ হরতাল দিয়েছে যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষা করার জন্য।” গণমাধ্যম স্বাধীনভাবে কাজ করছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী সবাইকে গঠনমূলক সমালোচনার অনুরোধ জানান। প্রধানমন্ত্রী বলেন, “সমালোচনা যেন এমন না হয়, যেটা ঐ শুত্রুদের হাতকে শক্তিশালী করবে, স্বাধীনতা বিরোধীদের হাতকে শক্তিশালী করবে অথবা কোন অগণতান্ত্রিক শক্তিকে আবার ডেকে আনার সুযোগ পাবে অন্তত সেই পর্যায় যেন না যায়।” অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সেরা রিপোর্টিংয়ে পুরস্কারপ্রাপ্তদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী।

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »