বার্তাবাংলা ডেস্ক »

khaleda in soudoবার্তবাংলা রিপোর্ট :: স্বাধীনতার ৪২ বছরে দাঁড়িয়ে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারকেই মূল চ্যালেঞ্জ মনে করছে প্রধান বিরোধীদল বিএনপি। দলটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবসহ শীর্ষ নেতারা জানিয়েছেন আন্দোলন আরো তীব্রতর হবে। এদিকে, স্বাধীনতা দিবসে জাতীয় স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা জানানোর পর প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সমাধিতে ফুল দিতে যান বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া।
দলের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে নিয়ে জাতীয় স্মৃতিসৌধে ফুলেল শ্রদ্ধা জানান বিরোধীদলীয় নেতা এবং বিএনপি চেয়ারপার্সন।
পরে তিনি যান প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সমাধিতে। শ্রদ্ধা জানানোর পর বিশেষ মোনাজাত এবং দোয়া পাঠে অংশ নেন তিনি। দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের বক্তব্য নাকচ করে প্রতিক্রিয়া জানান।
তিনি বলেন, ‘আমরা অবশ্যই মানবতাবিরোধী সকল অপরাধের বিচার চাই। দুর্ভাগ্যজনকভাবে এই বিচার নিয়ে দেশে এবং আন্তর্জাতিকভাবে অনেক প্রশ্ন শুরু হয়েছে। সুতরাং, জনাব আশরাফের এই বক্তব্য কোনোমতেই টেকে না, যে আমরা যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষা করার জন্য আন্দোলন করছি।’
‘আমরা আগেও বলেছি, যুদ্ধাপরাধীদের তারাই ছেড়ে দিয়েছিলেন। এখন আমাদের উপর দোষ চাপিয়ে লাভ নেই।’
বিরোধীদল গণতান্ত্রিক অধিকার চর্চার সুযোগ পাচ্ছে না বলে অভিযোগ করেন বিএনপি নেতারা।মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আজ ৪২ বছর পরও গণতন্ত্রের জন্য আমাদের সংগ্রাম করতে হচ্ছে। আজ স্বাধীনতার দিনে আমরা নতুন করে শপথ নেব, যাতে আমাদের হারানো গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার হয়।’
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, আমরা গণতন্থ্রকে পুনর্বহাল করবো।
বিএনপি চেয়ারপার্সন সেনাবাহিনীকে উষ্কে দেয়ার মতো কোন বক্তব্য দেননি মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বুধ-বৃহস্পতিবারের হরতাল সফল করার আহ্বান জানান।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »