রীমা কমিউনিটি সেন্টার বন্ধ ঘোষণা

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র এবং নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর কুলখানিতে পদদলিত হয়ে ১০ জন নিহতের ঘটনায় রীমা কমিউনিটি সেন্টারের কার্যক্রম তিন দিনের জন্য বন্ধ রাখা হয়েছে।জেলা প্রশাসনের মতামতের ভিত্তিতে মঙ্গলবার চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) এটি বন্ধ করে দিয়েছে।

একইসঙ্গে সিএমপিও এই ঘটনা তদন্তে একটি কমিটি গঠন করেছে।

নগরীর চকবাজার থানার ওসি নুরুল হুদা জানান, সোমবার দুপুরে মর্মান্তিক ঘটনার পরই রীমা কমিউনিটি সেন্টারের সব ধরনের কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়। তদন্তের স্বার্থে জেলা প্রশাসন আরো তিন দিন রীমা কমিউনিটি সেন্টারের সকল কার্যক্রম বন্ধ রাখতে বলেছে। এরপর আমরা সেটি বন্ধ করে নিয়ন্ত্রণে নিয়েছি।

এর আগে ঘটনা তদন্তে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ৫ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।

গতকাল সোমবার দুপুরে নগরীর জামালখানের রীমা কমিউনিটি সেন্টারে পদদলিত হয়ে ১০ নিহত ও অর্ধশতাধিক মানুষ আহত হন।

কুলখানি উপলক্ষে নগরীর ১১টি কমিউনিটি সেন্টারে সোমবার মেজবানের আয়োজন করে মহিউদ্দিন চৌধুরীর পরিবার। তার মধ্যে রীমা কমিউনিটি সেন্টারে মুসলিম ব্যতীত অন্য ধর্মাবলম্বীদের জন্য আয়োজন করা হয়েছিল।

উল্লেখ্য, গত ১৪ ডিসেম্বর দিনগত রাত সাড়ে তিনটার দিকে চট্টগ্রামের ম্যাক্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান মহিউদ্দিন চৌধুরী। পরের দিন বাদ মাগরিব নগরীর চশমাহিলে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।