বার্তাবাংলা ডেস্ক »

তুচ্ছ ঘটনায় ভ্রাম্যামাণ আদালত থেকে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডপ্রাপ্ত লক্ষ্মীপুরের সাবেক সিভিল সার্জন ডা. সালাহ উদ্দিন শরিফের জামিন দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে তার জামিন মঞ্জুর করেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মীর শওকত হোসেন।

লক্ষ্মীপুর জেলা বিএমএ’র সভাপতি ডাক্তার আশফাকুর রহমান মামুন ও জেলা কারাগারের জেলার শরীফুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে সদর হাসপাতালে সিভিল সার্জন কার্যালয়ে এক আলোচনা সভায় জেলা বিএমএ ও স্বাচিপ নেতারা ডা. সালাহ উদ্দিন শরিফের মুক্তির দাবিতে কর্মসূচি ঘোষণা করেন। দুপুর ১২টার মধ্যে মুক্তি না দিলে কর্মবিরতিসহ কঠোর আন্দোলনের হুমকি দেন চিকিৎসক নেতারা। তবে সকাল থেকেই সদর হাসপাতালের চিকিৎসকরা জেলা আদালতপাড়ায় অবস্থান করায় চিকিৎসা কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে । এনিয়ে রোগীদের চরম ভোগান্তি পোহাতে হয়।

ওই আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএমএ সভাপতি ডা. আশফাকুর রহমান মামুন, স্বাচিপ সভাপতি ডা. জাকির হোসেন, ডা. নুরুল ইসলাম, ডা. শংকর কুমার বশাক, ডা. আলতাফ হোসেন, ডা. হামিদ হোসেন, ডা. মোরশেদ আলম ও ডা. আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, সোমবার সকাল ৯টার দিকে শহরের জেলা প্রশাসকের বাস ভবন এলাকার কাকলি শিশু অঙ্গনের (বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়) প্রবেশ মুখে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শেখ মুর্শিদুল ইসলাম ও সাবেক সিভিল সার্জন ড. সালাহ উদ্দিন শরীফের মধ্যে বাক বিতণ্ডার পর হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। পরে সালাহ উদ্দিনকে আটক করে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে নেয়া হয়। সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে তাকে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়। পরে পুলিশ সালাহ উদ্দিনকে কারাগারে নিয়ে যায়। জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ নুরুজ্জামান।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »