বার্তাবাংলা ডেস্ক »

বাংলাদেশ সফরে এসে অনেক ব্যস্ততার মধ্যেও ঢাকার রিকশায় চড়ার অভিজ্ঞতা হল ক্যাথলিক খ্রিস্টানদের প্রধান ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিসের।

সফরের দ্বিতীয় দিনে শুক্রবার সকালে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রায় আশি হাজার ভক্তের অংশগ্রহণে এক প্রার্থনাসভায় পৌরহিত্য করেন পোপ।

বিকালে কাকরাইলের সেন্ট মেরিস ক্যাথেড্রালে যান বিশপদের সঙ্গে বৈঠক এবং একটি আন্তঃধর্মীয় সভায় অংশ নিতে।

সেখানেই তিন চাকার বাহন রিকশায় চড়ে ভক্তদের উদ্দেশে হাত নাড়তে দেখা যায় পোপকে। সেই ছবি প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

২০১৩ সালের ১৩ মার্চ ভ্যাটিকানের ২৬৬তম পোপ নির্বাচিত হন ফ্রান্সিস। রোমের বিশপ হিসেবে তিনি বিশ্বব্যাপী ক্যাথলিক চার্চ এবং সার্বভৌম ভ্যাটিকান সিটির প্রধান।

১৯৩৬ সালের ১৭ ডিসেম্বর আর্জেন্টিনার রাজধানী বুয়েনেস আয়ারসে এক গরিব ঘরে তার জন্ম। ইতালীয় বাবা বুয়েনেস আইরেসে রেলশ্রমিকের কাজ করতেন, মা ছিলেন গৃহবধূ।

পোপ ফ্রান্সিস যে তার অনেক পূর্বসূরির মত কট্টর মনোভাব পোষণ করেন না, তার প্রমাণ পাওয়া গেছে বিভিন্ন সময়ে।

ক্যাথলিক প্রথায় গর্ভপাতকে যেখানে মারাত্মক অপরাধ বিবেচনা করা হয়, সেখানে পোপ বিষয়টি ক্ষমার চোখে দেখতে বলেছেন। তার ভাষায়, ক্যাথলিক হয়েও ভণ্ডামি করার চেয়ে নাস্তিক হওয়া ভালো।

শরণার্থীদের অধিকারের প্রশ্নে বিভিন্ন সময়ে সরব হওয়া পোপ ফ্রান্সিস গত বছর তিন ধর্মের শরণার্থীদের পা ধুয়ে চুমু খেয়ে আরেক আলোচনার জন্ম দেন।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »