বার্তাবাংলা ডেস্ক »

ভারতের মধ্যপ্রদেশের বাসিন্দা মোহাম্মদ মাকসুদের পেটে কিছুদিন ধরেই ব্যথা। শেষে যেতে হলো অস্ত্রোপচারের টেবিলে। অস্ত্রোপচার করতে গিয়ে স্তম্ভিত হয়ে গেলেন চিকিৎসকেরা। কারণ, মাকসুদের পেটে পাওয়া গেছে মোট পাঁচ কেজি লোহা! এসবের মধ্যে ছিল ছোট্ট আকারের লোহার চেইন, ব্লেড ছাড়াও ২৬৩টি ধাতব মুদ্রা।

পিটিআইয়ের খবরে বলা হয়েছে, মোহাম্মদ মাকসুদের বয়স ৩২ বছর। থাকেন মধ্যপ্রদেশের সাতনা শহরে। পেটে ব্যথার কারণে তাঁকে নিয়ে আসা হয় রেওয়া শহরে। সেখানকার সঞ্জয় গান্ধী মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালে গত শুক্রবার মাকসুদের পেটে অস্ত্রোপচার করা হয়। চিকিৎসকেরা বলছেন, তিনি মানসিকভাবে সুস্থ নন।

ওই হাসপাতালের চিকিৎসক প্রিয়নায়ক শর্মা বলেন, মাকসুদের পেট ব্যথার কারণ জানতে এক্স-রেসহ বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষাতেই বোঝা যায় ব্যথার কারণ। তিনি বলেন, ‘আমরা ধারণা করছি, গোপনে এসব জিনিস খেয়ে ফেলেছিলেন মাকসুদ। তাঁর মানসিক অবস্থা ভালো নয়।’

প্রিয়নায়ক জানান, ছয়জন চিকিৎসক অস্ত্রোপচারে অংশ নেন। মাকসুদের পাকস্থলী থেকে পাওয়া যায় দাড়ি কাটার মোট ১২টি ব্লেড, চারটি বড় সুই, একটি চেইন, ২৬৩টি মুদ্রা, কয়েক টুকরো কাচ ইত্যাদি। সব মিলিয়ে অপসারণ করা লোহার জিনিসের ওজন পাঁচ কেজি।

অস্ত্রোপচার করার আগে সাতনাতে ছয় মাস ধরে চিকিৎসা চলেছিল মাকসুদের। কিন্তু তাতে ব্যথা না কমায় আনা হয় রেওয়া শহরে। এখন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে রয়েছেন এই ব্যক্তি।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »