বার্তাবাংলা ডেস্ক »

রাস্তায় হঠাৎ চোখে পড়ে মস্ত হাতিটি। জঙ্গলের রাস্তার ঠিক সামনেই দাঁড়িয়ে। ছবি তুলতে পারলে কী বাহাদুরিই না প্রকাশ পাবে। লোভ সামলাতে না পেরে ব্যাংকের নিরাপত্তাকর্মী সিদ্দিকুল্লা রহমান (৪০) এগিয়ে যান হাতিটির দিকে। সঙ্গীরা বাধা দিলেও কান দেননি তাতে।

সিদ্দিকুল্লার একহাতে মোবাইল আর কাঁধে বন্দুক। মোবাইলের ক্যামেরায় ছবি তোলার সময় ফ্ল্যাশের আলো পড়ে। সেটা দেখেই রেগে যায় হাতিটি। দৌড়ে ওই নিরাপত্তাকর্মীকে ধরে ফেলে। শুঁড় দিয়ে তুলে আছাড় মারে। পা দিয়ে পিষে ফেলে নিরাপত্তাকর্মীর মাথা। বন্দুকটিও ভেঙে ফেলে।

সবার চোখের সামনেই ভয়ংকর এই ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, সিদ্দিকুল্লা ভারতের পশ্চিমবঙ্গের জলপাইগুড়ি জেলার সেন্ট্রাল কো-অপারেটিভ ব্যাংকের নিরাপত্তাকর্মী। গতকাল সকালে তিনিসহ ব্যাংকের কয়েকজন নিরাপত্তাকর্মী টাকা নিয়ে মালবাজারে যান। সেখান থেকে ফেরার পথে লাটাগুড়ি জঙ্গল পথে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

সিদ্দিকুল্লাকে মারার পর জঙ্গলেই ফিরে যায় হাতিটি।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »