বার্তাবাংলা ডেস্ক »

আন্তর্জাতিক জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) দখল থেকে ইরাক ও সিরিয়ার ৯৫ ভাগ ভূখণ্ড উদ্ধার করা হয়েছে। অনেক প্রাণহানির ঘটনার মধ্য দিয়ে আইএসের বিরুদ্ধে এ জয় এসেছে। ইরাকে নিযুক্ত জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ প্রতিনিধি ইয়ান কুবিশ বুধবার এসব কথা বলেন।

নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে ইয়ান কুবিশ বলেন, সিরিয়া ও ইরাকের বিস্তীর্ণ অঞ্চল আইএসের অধীনে ছিল। ২০১৪ সালের গ্রীষ্ম মৌসুম থেকে ওই সব এলাকায় তারা নিয়ন্ত্রণ হারাতে শুরু করে।

ইরাক ও সিরিয়াকে আইএস মুক্ত করতে অনেক চড়া মূল্য দিতে হয়েছে উল্লেখ করে জাতিসংঘের বিশেষ প্রতিনিধি আরও বলেন, কয়েক হাজার সামরিক-বেসামরিক মানুষ হতাহত হয়েছে। হাজার নারীকে করেছে বিধবা আর শিশুরা হারিয়েছে তাদের বাবা-মা। শহরগুলোতে এখন কেবলই ধ্বংসযজ্ঞের চিহ্ন। প্রায় ৬০ লাখ মানুষ তাদের বাড়িঘর ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছে।

আইএস-বিরোধী মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটসহ বিশ্বের পরাশক্তির দেশগুলোকে এক হয়ে ইরাককে আইএস-মুক্ত করাসহ পুরো অঞ্চলে স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরিয়ে আনার আহ্বান জানান ইয়ান কুবিশ।

তাসের খবরে বলা হয়েছে, সিরিয়ায় বড় ধরনের সামরিক অভিযান কমিয়ে আনার পরিকল্পনা করছে রাশিয়া। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান ও ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির মধ্যে বুধবার কৃষ্ণসাগর তীরবর্তী সোচিতে এক ত্রিপক্ষীয় বৈঠকে করেন। সেখানে সিরিয়ার সংকটের দীর্ঘমেয়াদি সমাধানের ওপর বেশি গুরুত্ব দেন তাঁরা।

২০১৫ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে সিরিয়ায় আইএস অবস্থানে বিমান হামলা চালাচ্ছে রুশ বিমানবাহিনী। সর্বশেষ ইরাক-সিরিয়ার সীমান্তবর্তী এলাকা আবু কামাল শহরের কাছে আইএস ঘাঁটি লক্ষ্য করে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় রাশিয়া।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »