বার্তাবাংলা ডেস্ক »

আওয়ামী লীগ নেতা মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমেদ হত্যা মামলায় সাংসদ আমানুর রহমান খান রানার জামিন প্রশ্নে রুল খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। পাশাপাশি ছয় মাসের মধ্যে বিচারিক আদালতে মামলা নিষ্পত্তি করতে বলা হয়েছে।

আজ রোববার বিচারপতি বোরহান উদ্দিন ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামাল সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই রায় দেন।

আদালতে আমানুরের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী রোকনউদ্দিন মাহমুদ ও রুশো মোস্তাফা। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নজিবুর রহমান।

রুশো মোস্তফা বলেন, হাইকোর্ট জামিন প্রশ্নে রুল খারিজ করে দিয়েছেন। ছয় মাসের মধ্যে মামলার বিচার শেষ করতে বলা হয়েছে। তা না হলে জামিন আবেদন করা হলে তা বিবেচনা করতে বলা হয়েছে।

২০১৩ সালের ১৮ জানুয়ারি আওয়ামী লীগ নেতা ফারুক আহমেদের গুলিবিদ্ধ লাশ তাঁর কলেজপাড়া এলাকার বাসার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়। ঘটনার তিন দিন পর তাঁর স্ত্রী টাঙ্গাইল সদর থানায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে মামলা করেন। ২০১৪ সালের আগস্ট মাসে পুলিশ এই হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে আনিসুল ইসলাম ও মোহাম্মদ আলী নামে আমানুরের দুই ঘনিষ্ঠ ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে। আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে তাঁরা এই হত্যায় সাংসদ আমানুর ও তাঁর ভাইদের জড়িত থাকার বিষয়টি জানান।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »