বার্তাবাংলা ডেস্ক »

হলিউডে যৌন হয়রানির শিকার হওয়া নারীদের সমর্থনে কয়েক শ ব্যক্তি মিছিল করেছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে যৌন হয়রানিবিরোধী হ্যাশট্যাগ মি টু ক্যাম্পেইন ব্যাপক প্রচার পাওয়ার পর অনেকে নির্যাতন ও হয়রানির বিরুদ্ধে মুখ খুলতে শুরু করেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের হলিউডে রোববারের মিছিলকারীদের উল্লেখযোগ্য অংশই নারী হলেও সেখানে বেশ কিছু পুরুষকেও দেখা যায়।

সম্প্রতি হলিউডের বেশ কয়েকজন অভিনেত্রী অভিযোগ করেছেন, অস্কারজয়ী প্রযোজক হার্ভি ওয়েনস্টেইনের হাতে যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন তাঁরা। এরপর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে হ্যাশট্যাগ মি টু প্রচারণায় অনেক নারী-পুরুষ জানিয়েছেন কীভাবে তাঁরা যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন। হলিউড ব্যুলভার্ড থেকে শুরু হয়ে মিছিলটি সিএনএনের সদর দপ্তর পর্যন্ত যায়। এতে অনেক নারী যৌন হয়রানি ও নির্যাতনবিরোধী প্ল্যাকার্ড বহন করেন। অনেকে তাঁদের হয়রানির শিকার হওয়ার অভিজ্ঞতাও লিখে আনেন প্ল্যাকার্ডে।

এ-সংক্রান্ত ফেসবুক ইভেন্টে লেখা হয়েছে, ‘এটি প্রত্যেক হার্ভি ওয়েনস্টেইনের জন্য। এ ধরনের আরও শত শত পুরুষ আছে, যারা এ ধরনের কাজই করছে।’

হার্ভির পর হলিউড তারকাদের মধ্যে অভিনেতা কেভিন স্পেসি ও কমেডিয়ান লুইস সিকের বিরুদ্ধেও গত কয়েক সপ্তাহে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে।

লস অ্যাঞ্জেলেসে বাসিন্দা তাঁরা ম্যাকনামারা ওই মিছিলে অংশ নিয়েছেন। তিনি যৌন নিপীড়নের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করে বলেন, ‘আমি এ পর্যন্ত অনেকবার নিপীড়নের শিকার হয়েছি। আমার জীবনে প্রতিটি পর্যায়ে তা আমাকে তাড়া করে ফেরে।’ তাঁর মতে শুরু হওয়া এই বিক্ষোভ, প্রতিবাদ বহু বছরের ক্ষোভ থেকে সৃষ্ট। কেননা, বহু বছর ধরে এই বিষয়গুলোকে গুরুত্বসহকারে নেওয়া হতো না।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »