বার্তাবাংলা ডেস্ক »

রোহিঙ্গা সংকটের কারণে এক মাস দেড়িতে এ মৌসুমে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌ রুটে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল শুরু হয়েছে।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. জাহিদ সিদ্দিকী জানান, সোমবার সকাল পৌনে ১০টার দিকে পর্যটক যাত্রীদের নিয়ে ‘কেয়ারি সিন্দাবাদ’ নামে একটি জাহাজ টেকনাফের দমদমিয়া জেটিঘাট থেকে সেন্টমার্টিনে ছেড়ে যায়।

তিনি বলেন, “প্রতি বছর মধ্য অক্টোবর থেকে এ রুটে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল শুরু হয়। নাফ নদীর বেশ কয়েকটি স্থানে ডুবন্ত চর জেগে উঠায় ওই জাহাজ গুলোকে জলসীমার শূন্যরেখা পেরিয়ে মিয়ানমারের ভেতর দিয়ে চলাচল করতে হয়।

“বিগত বছরগুলোতে এ নিয়ে কোন ধরণের সমস্যা না হলেও এ বছর রোহিঙ্গা সমস্যার কারণে জাহাজ চলাচল নিয়ে নিরাপত্তার ঝুঁকি তৈরি হয়। ”

তিনি বলেন, “ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের পর্যালোচনা করেই সোমবার থেকে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচলের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।”

তবে ঝুঁকি এড়াতে বিগত বছরগুলোতে জাহাজগুলোতে যেভাবে আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা নিয়োজিত থাকতেন, এ বছরও সেই ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

কেয়ারি সিন্দাবাদ জাহাজের টেকনাফের ব্যবস্থাপক শাহ আলম বলেন, জাহাজটি পর্যটকদের নিয়ে বেলা সাড়ে ১২টার দিকে সেন্টমার্টিনে পৌঁছে।

“জাহাজ চলাচল শুরু প্রথম দিনেই সেন্টমার্টিন ভ্রমণে পর্যটকদের কাছ থেকে ব্যাপক সাড়া পাওয়া গেছে।পূর্ণ ধারণক্ষমতার ৩৫০ জন যাত্রী নিয়েই জাহাজটি সেন্টমার্টিনের উদ্দ্যেশে রওনা দেয়।”

সবকিছু ঠিক থাকলে জাহাজটি বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে টেকনাফের উদ্দ্যেশে ফিরবে বলে জানান তিনি।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »