বার্তাবাংলা ডেস্ক »

ctgবার্তবাংলা রিপোর্ট :: রাষ্ট্রপতির মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ হয়ে আছে পুরো চট্টগ্রাম। বিভিন্ন স্থানে উড়ছে কালো পতাকা। সরকারী অফিস, আদালতে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয়েছে। বুকে কালো ব্যাজ ধারণ করে সাধারণ মানুষ রাষ্ট্রপতির জন্য শোক পালন করছেন। রাষ্ট্রপতির মৃত্যুতে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনসহ বিভিন্ন সরকারী প্রতিষ্ঠানে খতমে কোরআন, দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে মন্ত্রীসভার জরুরি বৈঠকে বৃহস্পতিবার সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়। গণমাধ্যমে সংবাদটি প্রচারের পর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অফিস ছেড়ে বেরিয়ে পড়তে শুরু করেন।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনেরসচিব মো.সামসুদ্দোহা বলেন, ‘সকালে যথারীতি আমরা অফিসিয়াল ওয়ার্ক শুরু করেছিলাম। কিন্তু সাধারণ ছুটি ঘোষণার পর আমরা কর্মকর্তা-কর্মচারীদের রাষ্ট্রপতির জন্য মিলাদে অংশ নিয়ে চলে যাবার জন্য নির্দেশ দিয়েছি।’

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও বর্ষীয়ান রাজনীতিক জিল্লুর রহমানের মৃত্যুতে দেশব্যাপী সাধারণ ছুটি ঘোষণার পর বন্দরনগরী চট্টগ্রামের বিভিন্ন সরকারী-বেসরকারী অফিস, চট্টগ্রাম বন্দর, আদালত, ব্যাংক, বীমা ছেড়ে গেছেন কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। স্কুল, কলেজসহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোও তাৎক্ষণিকভাবে ছুটি দেয়া হয়।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, সকালে জেলা প্রশাসক আব্দুল মান্নানের সভাপতিত্বে জেলা প্রশাসনের সর্বস্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জরুরি বৈঠক চলছিল। সাধারণ ছুটি ঘোষণার পর ওই বৈঠক স্থগিত করা হয়। এরপর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের চলে যাবার নির্দেশ দেয়া হয়।

চট্টগ্রামের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) খালেদ মামুন চৌধুরী বলেন, ‘ফ্যাক্সযোগে চিঠি জেলা প্রশাসক মহোদয়ের কাছে এসেছে। এরপর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।’

আদালত সূত্রে জানা গেছে, সাধারণ ছুটি ঘোষণার পর চট্টগ্রাম আদালতে মহানগর দায়রা জজ এস এম মুজিবুর রহমান, মুখ্য মহানগর হাকিম মশিউর রহমানসহ সর্বস্তরের বিচারকরা এজলাস ছেড়ে যান।

রেলয়ে পূর্বাঞ্চলের সহকারী পরিচালক (জনসংযোগ) মিজানুর রহমান জানান, গণমাধ্যমে সাধারণ ছুটি ঘোষণার বিষয়টি প্রচারের পর তাৎক্ষণিকভাবে রেলওয়ের জরুরি বিভাগগুলো ছাড়া বাকি সব বিভাগে ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের সচিব রবীন্দ্র শ্রী বড়ুয়া জানান, সাধারণ ছুটি ঘোষণার খবর টেলিভিশনে প্রচারের পর প্রশাসকের নির্দেশে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সবাই অফিস ছেড়ে গেছেন।

এদিকে সাধারণ ছুটি ঘোষণার সরকারী-বেসরকারী ব্যাংকগুলোতেও লেনদেন বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। তবে বন্দর, কাস্টমসসহ নগরীতে জরুরি কিছু শাখায় লেনদেন স্বাভাবিকভাবে চলছে বলে জানা গেছে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »