রায়ে সংসদকে ছোট করা হয়েছে : তোফায়েল

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বিষয়ে আদালতের সাম্প্রতিক রায়ে জাতীয় সংসদকে ছোট করা হয়েছে বলে মনে করেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

সচিবালয়ে আজ বাণিজ্য মন্ত্রণালয় আয়োজিত জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন ও কর্মের ওপর এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘রায়ের সঙ্গে পর্যালোচনার নামে জাতীয় সংসদকে ছোট করা হয়েছে। আমাদের পবিত্র সংবিধানে বলা আছে, সব ক্ষমতার উৎস জনগণ। সেই জনগণের নির্বাচিত প্রতিনিধিরাই হচ্ছেন মহান সংসদের সদস্য। পর্যালোচনার নামে আসলে জাতীয় সংসদ, জাতীয় সংসদের সদস্য ও সর্বোপরি দেশের জনগণকে ছোট করা হয়েছে।’

সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া দুজনেই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুনিদের পক্ষে কাজ করেছেন বলে জানান বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, দেশে ধর্মভিত্তিক রাজনীতির চর্চার জন্যও দায়ী মূলত এ দুজন।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যার সঙ্গে জিয়াউর রহমান জড়িত। বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিভিন্ন দূতাবাসে চাকরি দিয়ে এবং বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে তিনি নিজেই তা প্রমাণ করেছেন। আবার খালেদা জিয়া বঙ্গবন্ধুর খুনি কর্নেল রশীদকে সাংসদ বানিয়ে জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা বানিয়েছিলেন। যুদ্ধাপরাধীদের মন্ত্রীও বানিয়েছিলেন তিনি।

১৯৪৮ সাল থেকে দেশ স্বাধীন হওয়া পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু ৪ হাজার ৬৮২ দিন জেল খেটেছেন জানিয়ে বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামবহুল জীবন ও প্রজ্ঞার কথা তুলে ধরেন তোফায়েল আহমেদ।

বাণিজ্যসচিব শুভাশীষ বসু, ট্যারিফ কমিশনের চেয়ারম্যান মুশফিকা ইকফাৎ, প্রতিযোগিতা কমিশনের চেয়ারম্যান ইকবাল খান চৌধুরী, রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর ভাইস চেয়ারম্যান বিজয় ভট্টাচার্য্যসহ বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন।