বার্তাবাংলা ডেস্ক »

ভারতের কিংবদন্তি অভিনেতা দিলীপ কুমার বুধবার হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন। গত বুধবার তাঁকে মুম্বাইয়ের লীলাবতী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিডনির সমস্যা ও অতিরিক্ত পানিশূন্যতার জন্য তাঁকে আইসিইউতে রাখা হয়েছিল। তাঁর চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, তিনি এখন বাড়ি যাওয়ার জন্য শারীরিকভাবে প্রস্তুত।

লীলাবতী হাসপাতালের ভাইস প্রেসিডেন্ট অজয় পাণ্ডে বলেন, ‘দিলীপ কুমার এখন বাড়ি যেতে পারবেন। তাঁকে আজই হাসপাতাল থেকে ছাড়া হবে। তিনি এখন খেতে পারছেন। আর আগের থেকে বেশ ভালো বোধ করছেন। তাঁর ক্রিয়েটিটিনের মাত্রাও এখন স্বাভাবিক পর্যায়ে নেমে এসেছে। ভয় পাওয়ার কিছু নেই। এখন শুধু তাঁর বিশ্রাম প্রয়োজন। আশা করা হচ্ছে, শিগগিরই তিনি স্বাভাবিক জীবনযাপনে ফিরতে পারবেন।’

হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর গুজব ছড়িয়েছিল দিলীপ কুমারকে ভেন্টিলেশনে রাখা হয়েছে। তাঁর ডায়ালাইসিস করা হবে বলেও শোনা যায়। কিন্তু ৯৪ বছর বয়সী এই অভিনেতার স্ত্রী সায়রা বানু জানান, দুটি খবরই অসত্য।

১৯৫৫ সালে ‘দেবদাস’ ছবির নাম ভূমিকায় অভিনয় করে দিলীপ কুমার ফিল্মফেয়ারে সেরা অভিনেতার পুরস্কার পেয়েছিলেন। এ ছাড়া তিনি ২০১৫ সালে ভারতের বেসামরিক সম্মাননা ‘পদ্মবিভূষণ’ পান। ১৯৯১ সালে ‘পদ্মভূষণ’ আর ভারতীয় চলচ্চিত্রে অনন্য অবদানের জন্য ‘দাদাসাহেব ফালকে’ সম্মাননায় ভূষিত করা হয়েছিল দিলীপ কুমারকে। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »