বার্তাবাংলা ডেস্ক »

ভারতের কিংবদন্তি অভিনেতা দিলীপ কুমারের শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হয়েছে। গত ২ আগস্ট থেকে কিডনির সংক্রমণ ও পানিশূন্যতাজনিত সমস্যা নিয়ে মুম্বাইয়ের লীলাবতী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৯৪ বছর বয়সী এ অভিনেতা।রোববার সকালে হাসপাতালের বরাত দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যম জানায়, দিলীপ কুমারের অবস্থা আগের চেয়েও অবনতি হয়েছে।

ভর্তির পর লীলাবতী হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয় তাকে। হাসপাতালে সার্বক্ষণিক দিলীপ কুমারের পাশে রয়েছেন তার স্ত্রী সায়রা বানু।এরআগে চিকিৎসকরা জানান, দিলীপ কুমারের বেশ কয়েকটি মেডিকেল টেস্ট করানো হয়েছে। সেই রিপোর্টের ভিত্তিতেই তার চিকিৎসা করা হবে।

১৯২২ সালে তৎকালীন পাকিস্তানের পেশোয়ারে জন্ম নেওয়া ভারতের এই কিংবদন্তি অভিনেতার নাম পারিবারিকভাবে রাখা হয়েছিল মোহাম্মদ ইউসুফ খান। চলচ্চিত্রে জগতে এসে তিনি দিলীপ কুমার নামে পরিচিত হয়ে ওঠেন। পরবর্তী সময়ে এই নামেই তিনি প্রতিষ্ঠিত হন।

১৯৪৪ সালে ‘জোয়ার ভাটা’ দিয়ে বলিউডে শুরু হয় দিলীপ কুমারের পথচলা। দীর্ঘ ছয় যুগের ক্যারিয়ারে ‘মধুমতী’, ‘দেবদাস’, ‘মুঘল-ই-আজম’, ‘গঙ্গা-যমুনা’, ‘আন’, ‘ক্রান্তি’র মতো চলচ্চিত্রে অভিনয় করে খ্যাতির শীর্ষে ওঠেন, অর্জন করেন অসামান্য জনপ্রিয়তা। ‘বাবুল’, ‘আন্দাজ’, ‘দিদার’, ‘মেলা’ ছবিতে তার চরিত্র ও অভিনয়ের কারণে ‘ট্র্যাজেডি কিং’ হিসেবে প্রতিষ্ঠা পান ভারতীয় চলচ্চিত্রের সোনালি যুগের এই মহাতারকা।

সর্বশেষ ১৯৯৮ সালে ‘কিলা’ ছবিতে দিলীপ কুমারকে বড় পর্দায় দেখা যায়। ১৯৯৪ সালে চলচ্চিত্রে ভারত সরকারের সর্বোচ্চ সম্মাননা ‘দাদা সাহেব ফালকে’ পুরস্কারে ভূষিত করা হয় তাকে। ২০১৫ সালে লাভ করেন ‘পদ্মভূষণ’ খেতাব।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »