বার্তাবাংলা ডেস্ক »

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ৫৬ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে প্রশাসনের করা মামলা প্রত্যাহারসহ চারটি দাবিতে তিন দিন ধরে প্রশাসনিক ভবন অবরোধ করে রেখেছেন শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীদের অবরোধের ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক কার্যক্রম স্থবির হয়ে পড়েছে। প্রশাসনিক কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অফিস করতে পারেননি।

মামলা প্রত্যাহার না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। তবে মামলা প্রত্যাহারের বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।

আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক ছাত্র ইউনিয়নের জাবি শাখার সভাপতি ইমরান নাদিম বলেন, ‘সিন্ডিকেট এই মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করা না পর্যন্ত আমাদের এই লাগাতার অবরোধ চলবে।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম বলেন, ‘তারা (আন্দোলনকারীরা) সম্ভবত লাগাতার অবরোধ কর্মসূচি ধরে রাখতে চাইছে। এটা তাদের অশুভ পদক্ষেপ। বিশ্ববিদ্যালয়ের তদন্ত কমিটি কাজ করে যাচ্ছে। সেটা যদি তারা না মানে আর তাদের ব্যানারে যদি সব সময় লেখা থাকে মিথ্যা হত্যা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে, তাহলে আমরা সেটার ওপরে দাঁড়িয়ে আসলে কিন্তু কোনো সমাধান করতে পারব না।’অবরোধের পরিপ্রেক্ষিতে ক্যাম্পাসে যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে উপাচার্যের বাসভবনে বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »