বার্তাবাংলা ডেস্ক »

শ্রীলঙ্কার কলম্বো বন্দরগামী একটি জাহাজে তুলে দেওয়ার আগে চট্টগ্রাম বন্দরের মূল ফটকের সামনে একটি কনটেইনারের ভেতর থেকে এক শ্রমিককে উদ্ধার করেছেন বন্দরের নিরাপত্তাকর্মীরা। কনটেইনারটিতে তৈরি পোশাক রপ্তানি করা হচ্ছিল।

আজ সোমবার সকালে বাবুল ত্রিপুরা (৩০) নামের ওই শ্রমিককে উদ্ধার করে বন্দর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তিনি কেডিএস ডিপোর শ্রমিক। তাঁর বাড়ি খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা এলাকায়।

বন্দরের কর্মকর্তারা বাবুলের সঙ্গে কথা বলে জানতে পেরেছেন, ওই শ্রমিক কেডিএস ডিপোতে কাজ করেন। কাজ শেষে রাতে কনটেইনারের ভেতর ঘুমিয়ে পড়েন। পরে ওই কনটেইনার সিলগালা করে কনটেইনারবাহী গাড়িতে তুলে দেওয়া হয়। ঘুম থেকে জেগে উঠে ওই শ্রমিক কনটেইনারের ভেতর থেকে চিৎকার-চেঁচামেচি করতে শুরু করেন। বন্দরের মূল ফটকে গাড়ির কাগজপত্র যাচাই-বাছাইয়ের সময় বিষয়টি টের পেয়ে নিরাপত্তাকর্মীরা কনটেইনার খুলে তাঁকে উদ্ধার করেন।

বাবুল ত্রিপুরাকে উদ্ধারের পর রপ্তানিপণ্যবাহী কনটেইনারটি বন্দর ফটকের সামনে রাখা হয়েছে। তদন্তের পর এটি রপ্তানি করা হবে। কলম্বো বন্দরের মাধ্যমে এটি কোন দেশে রপ্তানি হবে, তা তাৎক্ষণিকভাবে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

বন্দর পর্ষদের সদস্য জাফর আলম বলেন, কেডিএস ডিপো থেকে তৈরি পোশাকবাহী কনটেইনারটি বন্দর দিয়ে জাহাজে তুলে দেওয়ার কথা ছিল। বন্দরের ভেতরে নেওয়ার আগে ফটকে কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করার সময় কনটেইনার থেকে শব্দ শোনেন নিরাপত্তাকর্মীরা। পরে কনটেইনার খুলে তাঁকে উদ্ধার করা হয়।

বন্দর কর্মকর্তারা জানান, রপ্তানিপণ্যবাহী কনটেইনারটি প্রথমে বন্দরের ‘চার্লি’ জাহাজে তুলে দেওয়ার কথা ছিল। ভারতের কৃষ্ণপট্টনম বন্দর হয়ে কলম্বো বন্দরে গিয়ে সব কনটেইনার নামিয়ে রাখার কথা জাহাজটির। তবে শ্রীলঙ্কা থেকে কোন বন্দরে যাওয়ার কথা, তা জানা যায়নি।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »