থলের বেড়াল বের করেছেন এমপি এনামুর

ঢাকা-১৯ আসনে আওয়ামী লীগদলীয় সংসদ সদস্য এনামুর রহমানের বক্তব্য ‘পাঁচজনকে ক্রসফায়ারে হত্যা ও আরো ১৪ জনের তালিকা করা’ নিয়ে নিজেদের মতামত জানিয়েছে বিএনপি। সংসদ সদস্য এনামুর তাঁর বক্তব্যের মাধ্যমে থলের বিড়াল বের করে দিয়েছেন বলে মনে করছে দলটি। শনিবার বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, “আপনারা গণমাধ্যমে দেখেছেন সরকারদলীয় একজন এমপির ক্রসফায়ারে মানুষ হত্যার ঘোষণা। পাঁচজনকে ‘ক্রসফায়ারে’ দিয়ে হত্যা এবং আরো ১৪ জনের তালিকা করার যে ঘোষণা দিয়েছেন সাভারের সরকারদলীয় সংসদ সদস্য, তাতে বিরোধী রাজনীতিকরা আতঙ্কে পড়েছেন। এখন সেই সংসদ সদস্য যতই বক্তব্য প্রত্যাহার করুন না কেন, তিনি থলের বিড়াল বের করে দিয়েছেন।” এ সময় রিজভী বলেন, ‘সরকারদলীয় একজন এমপির ক্রসফায়ারের তালিকা তৈরির ঘোষণায় এটি প্রমাণিত হলো যে, এতদিন ধরে বর্তমান সরকারের জীবনবিনাশী রক্ত আর লাশ ফেলার কর্মসূচির বিষয়ে বিরোধী দলের অভিযোগ যথার্থ। সরকারদলীয় এই এমপির ঘোষণার সকল বিচারবহির্ভূত  হত্যাকাণ্ড, বেআইনি গুম, খুনের সঙ্গে বর্তমান সরকার প্রত্যক্ষভাবে জড়িত। ধমক দিয়ে সেই এমপির বক্তব্য প্রত্যাহার করানো হলেও সত্যিকার ম্যাসেজ জাতি পেয়ে গেছে। ভোটারবিহীন সরকার ক্ষমতাকে আঁকড়ে ধরে রাখতে এভাবেই বিএনপিসহ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের তালিকা করে বিচারবহির্ভূত হত্যা ও নির্যাতন-নিপীড়ন চালিয়ে এসেছে। এটা জাতির সামনে আজ পরিষ্কার।’ এই খবরে দেশবাসী শিহরিত ও আতঙ্কিত বলেও উল্লেখ করেন রিজভী। এর আগে গত ১৮ জুলাই একটি জাতীয় দৈনিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ঢাকা-১৯ আসনের সংসদ সদস্য এনামুর রহমান বলেন, ‘সাভারে অনেক ক্যাডার আর মাস্তান ছিল। এখন সব পানি হয়ে গেছে। করার টু শব্দ করার সাহস নেই। পাঁচজনকে ক্রসফায়ারে দিয়েছি, আরো ১৪ জনের লিস্ট করেছি। সব ঠান্ডা। লিস্ট করার পর যে দু-একজন ছিল তারা আমার পা ধরে বলেছে, আমাকে জানে মাইরেন না, আমরা ভালো হয়ে যাব।’ দীর্ঘদিন ধরেই দেশে ‘ক্রসফায়ার’ বা ‘বন্দুকযুদ্ধ’ নিয়ে সমালোচনা চলে আসছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর এই ক্রসফায়ারকে বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড বলেও উল্লেখ করেছে দেশি-বিদেশি বহু মানবাধিকার সংস্থা। এমন পরিস্থিতিতে সরকারদলীয় একজন সাংসদের এমন মন্তব্য দেশজুড়ে তীব্র সমালোচনার সৃষ্টি করে। তবে ওই জাতীয় দৈনিকে ছাপা হওয়া নিজের বক্তব্যকে অনভিপ্রেত, অশোভনীয় ও নিন্দনীয় বলে উল্লেখ করে বিভিন্ন পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছেন সংসদ সদস্য এনামুর রহমান। সেখানে তিনি বলেন, ‘প্রকৃতপক্ষে আমি যে বিষয়ে আলোকপাত করতে চেয়েছিলাম তা যথাযথভাবে উপস্থাপন করতে না পারায় বক্তব্যের রূপটি বিকৃত হয়ে ভিন্ন অর্থ প্রকাশ করেছে; যা জনমনে বিভ্রান্তির সৃষ্টি করেছে। এ বক্তব্যের জন্য আমি লজ্জিত, দুঃখিত। জাতির কাছে ক্ষমাপ্রার্থী।’ ক্রসফায়ার সম্পর্কে দেওয়া বক্তব্যকে একান্ত ব্যক্তিগত উল্লেখ করে এর সম্পূর্ণ দায় নিজের ওপরে নেন এনামুর রহমান। বলেন, ‘এর সঙ্গে সরকার কিংবা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কোনো সংশ্লিষ্টতা এমনকি নীতিগত প্রতিফলন নেই। আমি আমার অবিবেচনাসুলভ বক্তব্য প্রত্যাহার করে নিচ্ছি। একই সঙ্গে এ ব্যাপারে কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ারও অনুরোধ করছি।’