যুবককে প্রকাশ্যে ধারলো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা

খুলনায় এক যুবককে প্রকাশ্যে ধারলো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। খুলনা সদর থানার ওসি এম এম মিজানুর রহমান জানান, নগরীর জোড়াগেট মোড়ে মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সাঈদুর রহমান হাওলাদার (২৫) নগরীর ৭ নম্বর ঘাট এলাকার সেলিম হাওলাদারের ছেলে। জোড়াগেট মোড়ে মায়ের চায়ের দোকান দেখাশোনা করতেন তিনি।

সাঈদুল ছাত্রলীগের কর্মী ছিলেন বলে পরিবার দাবি করলেও সংগঠন থেকে তা অস্বীকার করা হয়েছে।

ওসি মিজানুর বলেন, “সাঈদ দুপুরে যখন তাদের দোকানের সামনে দাঁড়িয়ে ছিলেন, তখন কয়েকজন যুবক এসে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে কুপিয়ে পালিয়ে যায়।”

পরে পথচারীরা সাঈদকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওসি বলেন, গত ২৭ এপ্রিল পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ স্থানীয় সন্ত্রাসী আব্দুর রহিম নিহত হন। রহিমকে গ্রেপ্তারে সাঈদ পুলিশকে সাহায্য করেছিলেন।

“এর জেরে রহিমের অনুসারীরা তাকে হত্যা করতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।”

মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক আনিসুর রহমান পপলু বলেন, “সাইদের মা হাজেরা বেগম তার ছেলেকে যুবলীগের কর্মী বলে দাবি করেছেন। কিন্তু সাঈদ কখনোই সংগঠনে যুক্ত ছিল না; আমি তাকে দেখিনি।”

সোনাডাঙ্গা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান বুলু বিশ্বাস বলেন, ‘স্থানীয় মাদক বিক্রেতারা’ হামলা চালিয়ে সাঈদকে হত্যা করেছে বলে তাদের সন্দেহ।