বার্তাবাংলা ডেস্ক »

Dating App

j.u.
আহসান হাবীব,জাবিঃ
কথা কাটাকাটির জের ধরে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত হয়েছে অন্তত ১০ জন । রবিবার রাত সাড়ে ৯ টায় ক্যাম্পাসের বটতলায় মওলানা ভাসানী হল ও শহীদ রফিক-জব্বার হলের ছাত্রলীগের জুনিয়র কর্মীদের মধ্যে এ সংঘর্ষ ঘটে। পরে পুলিশ ও প্রক্টরিয়াল বডির হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, এদিন সন্ধ্যা ৭টায় ডেইরী গেইটে বাস থামানোকে কেন্দ্র করে কথা কাটাকাটি হয় এই দুই হলের ছাত্রলীগ কর্মীদের মধ্যে। ঐ ঘটনার জের ধরে বটতলায় মাহবুবের খাবারের দোকানে শহীদ রফিক-জব্বার হলের লিংকন( আই.আই.টি) এর উপর হামলা চালায় মওলানা ভাসানী হলের ছাত্রলীগ কর্মীরা। এ সময় মাহবুবের দোকানেও ভাংচুর চালায় তারা।

এরপর থেকে শুরু হয় সোয়া ঘন্টা ব্যাপী ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া। এতে নিক্ষিপ্ত ইটের আঘাতে আহত হন, শাওন(মাইক্রোবায়োলজি),জন(মাইক্রোবায়োলজি),ইউনুস(ইতিহাস),মুহিত(লোক-প্রশাসন),অনিক(নৃ-বিজ্ঞান) ও বায়েজিদ(পদার্থবিজ্ঞান) সহ কমপক্ষে ৯ জন। আহতদেরকে বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল সেন্টারে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। তবে লিংকন, অনিক ও জন গুরুতর আহত হওয়ায় তাদেরকে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ সময় মওলানা ভাসানী হলের নিচ তলার জানালার কাঁচ ভাংচুর করে শহীদ রফিক-জব্বার হলের ছাত্রলীগ কর্মীরা। সংঘর্ষের সময় উভয় পক্ষের হাতে পাইপ,রড,লাঠি ও রামদা সহ দেশীয় অস্ত্র দেখা যায়।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে সংঘর্ষের সাথে ছাত্রলীগ জড়িত থাকার অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে প্রক্টর ড. সোহেল আহমেদ বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে ৪১ তম ব্যাচের বর্ষপূর্তি নিয়ে অভ্যন্তরীন কোন্দলের ফলে এ ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। এতে জড়িতদেরকে সনাক্ত করে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জাবি ছাত্রলীগের যুগ্ম-সম্পাদক ও মওলানা ভাসানী হলের ছাত্রলীগ নেতা রাসেল মাহমুদ বার্তাবাংলাকে বলেন, যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তারা ছাত্রদলের সাথে জড়িত, ছাত্রলীগ এর সাথে জড়িত নয়।

বর্তমানে সেখানে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে। ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

Dating App
শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »