বার্তাবাংলা ডেস্ক »

দেশের প্রথম স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১’ পরিচালনার জন্য `বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেড’ গঠন করেছে সরকার।

সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদসচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উদ্বোধনের প্রক্রিয়া চলছে। এটা শিগগিরই হবে বলে আশা করছি।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট পরিচালনার জন্য একটি কোম্পানি গঠনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। যারা এটির মূল ব্যবস্থাপক তারা বলছেন, এটি লোকালি পরিচালনায় একটি কোম্পানি লাগবে। কোম্পানির নাম প্রস্তাব করা হয়েছে বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেড।

তিনি জানান, ৫ হাজার কোটি টাকার অনুমোদিত মূলধন নিয়ে এ কোম্পানি গঠন করা হবে। এর মোট ৫০০ কোটি শেয়ার হবে, যার প্রত্যেকটির মূল্য হবে ১০ টাকা।

মন্ত্রিপরিষদসচিব জানান, কোম্পানি পরিচালনার জন্য ১১ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করার প্রস্তাব দেওয়া হয়। সব সদস্যই হবেন সরকারি কর্মচারী। এদের মধ্যে ডাক ও টেলিযোগাযোগের সচিব, অতিরিক্ত সচিব, অর্থ বিভাগের প্রতিনিধি, তথ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি। এছাড়াও একজন ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সরকার নিয়োজিত দুইজন পরিচালক থাকবেন কমিটিকে। এর চেয়ারম্যান থাকবেন ডাক ও টেলিযোগাযোগের সচিব।

গত ১৭ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর রেপ্লিকা হস্তান্তর করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণে খরচ হবে ২ হাজার ৯৬৭ কোটি টাকা। যুক্তরাষ্ট্রের স্পেস এক্স ও ফ্যালকন-৯ উৎক্ষেপণ যান ব্যবহার করে ফ্লোরিডার লঞ্চ প্যাড থেকে ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে এ উপগ্রহ উৎক্ষেপণ করা হবে।

সফলভাবে এই উপগ্রহ মহাকাশে গেলে বিশ্বের ৫৭তম দেশ হিসেবে নিজস্ব স্যাটেলাইটের মালিক হবে বাংলাদেশ। মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের অবস্থান হবে ১১৯ দশমিক ১ ডিগ্রি পূর্ব দ্রাঘিমাংশে। এই কক্ষপথ থেকে বাংলাদেশ ছাড়াও সার্কভুক্ত সব দেশ, ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপাইন, মিয়ানমার, তাজিকিস্তান, কিরগিজস্তান, উজবেকিস্তান, তুর্কমিনিস্তান ও কাজাখস্তানের কিছু অংশ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের আওতায় আসবে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »