সাংবিধানিকভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর গণতন্ত্রের বিজয়

বার্তবাংলা রিপোর্ট :: পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী রাজা পারভেজ আশরাফ বলেছেন, একটি নির্বাচিত সরকারের সাংবিধানিকভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর গণতান্ত্রিক শক্তির বিজয়। পাকিস্তান টেলিভিশন এবং রেডিও পাকিস্তানে দেয়া বিদায়ী ভাষণে শনিবার রাতে প্রধানমন্ত্রী একথা বলেন। গণতন্ত্র জোরদার করতে বিভিন্ন সংস্থা এবং প্রতিষ্ঠানের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনের জন্যও তিনি তাদেরকে ধন্যবাদ জানান। প্রধানমন্ত্রী আশরাফ উল্লেখ করেন, বর্তমান সরকার অব্যাহতভাবে নেতিবাচক প্রোপাগান্ডা এবং বানোয়াট অভিযোগের শিকার হয়েছে। এরপরও মেয়াদ পূর্ণ করতে পারা তাদের জন্য অভূতপূর্ব এবং ঐতিহাসিক ঘটনা বলে তিনি মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, গণতন্ত্রের যাত্রাপথে নানা চড়াই-উৎরাই এবং চ্যালেঞ্জের মধ্য দিয়ে পথ চলতে হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, গত পাঁচ বছরে সরকার তীব্র সমালোচনার মুখোমুখি হয়েছে। এরপরও গণতান্ত্রিক ব্যবস্থার উন্নয়নের লক্ষ্যে ভূমিকা পালনের জন্য সরকার গণমাধ্যমের স্বাধীনতা বহাল রেখেছে। ২০০৮ সালের পরিস্থিতির সঙ্গে তুলনা করে তিনি বলেন, কয়েক দশকের সঙ্কটের মুখে দেশ আন্তর্জাতিক পর্যায়ে একেবারে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছিল। অর্থনীতির অবস্থা ছিল বেশ খারাপ, দেশে বিদ্যুৎ সংকট ছিল, বৈদেশিক মুদ্রার মজুত মারাত্মক পর্যায়ে নেমে গিয়েছিল। দেশে খাদ্য ঘাটতির পাশাপাশি সন্ত্রাসবাদের কারণে অস্তিত্ব হুমকির মুখে ছিল। প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার জাতীয় ঐক্য জোরদার করে প্রাতিষ্ঠানিক কার্যক্রমের অগ্রগতি করেছে, স্বতন্ত্র পররাষ্ট্রনীতির ভিত্তি স্থাপন করেছে এবং সোয়াতে তালেবান বিদ্রোহের পর সেখানে আবার জাতীয় পতাকা মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। প্রধানমন্ত্রী অবশ্য স্বীকার করেন, সরকার গত পাঁচ বছরে যথেষ্ট কাজ করতে পারেনি। তবে দেশের নানা সমস্যা হ্রাস করেছে এবং গণতন্ত্রকে পরবর্তীতে কেউ আর যাতে পদলিত না করতে পারে সে লক্ষ্যে এর শেকড় দৃঢ় করেছে।