বার্তাবাংলা ডেস্ক »

মালয়েশিয়ায় অবৈধভাবে থাকা বিদেশি শ্রমিকদের বিরুদ্ধে চলমান সাঁড়াশি অভিযানের প্রথম দিনে এক হাজার ৩৫ জন শ্রমিক ও ১৬ জন স্থানীয় নিয়োগকারীকে আটক করা হয়েছে। আটকদের ৫১৫ জনই বাংলাদেশি শ্রমিক।

শনিবার মালয়েশিয়ার নিউ স্ট্রেইটস টাইমস অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

মালয়েশিয়া সরকার ঘোষিত এনফোর্সমেন্ট কার্ডের (ই-কার্ড) নিবন্ধনের সময় পেরিয়ে যাওয়ায় অবৈধ হিসেবে থাকা বিদেশি শ্রমিকদের আটকে গত শুক্রবার (৩০ জুন) মধ্যরাত থেকে দেশব্যাপী সাঁড়াশি অভিযান শুরু করে অভিবাসন কর্তৃপক্ষ।

রাজধানী কুয়ালালামপুর, পেরাক, জোহর বারু, কোতা বারু, কেলান্তান, কেদাহ, আলোর সেতার, মালাকাসহ দেশেটির প্রত্যন্ত প্রদেশে অভিযান চালিয়ে এসব শ্রমিকদের আটক করা হয়।

মালয়েশিয়ার অভিবাসন কর্তৃপক্ষের মহাপরিচালক মুস্তাফার আলী জানান, সারাদেশের ১৫৫টি স্থানে অভিযান চালানো হয়েছে। এ সময় তিন হাজার ৩৯৩ জন সন্দেহভাজন বিদেশির কাগজপত্র পরীক্ষা শেষে এক হাজার ৩৫ জন শ্রমিককে আটক করা হয়।

তিনি জানান, আটকদের মধ্যে বাংলাদেশি শ্রমিকরা সংখ্যাগরিষ্ঠ। এদের সংখ্যা ৫১৫ জন। অন্যদের মধ্যে ইন্দোনেশিয়ার নাগরিক আছেন ১৩৫ জন ও অন্যান্য দেশের ২২৬ জন শ্রমিক।

তবে ই-কার্ডের জন্য আবেদন করার সময়সীমা আর বাড়ানো হবে না বলে নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানান তিনি।

চলতি বছরের ১৫ ফেব্রুয়ারি শুরু হয় মালয়েশিয়ায় বসবাসরত অবৈধ বিদেশি শ্রমিকদের বৈধকরণ ই-কার্ড প্রক্রিয়া। এ প্রক্রিয়ার মেয়াদ শেষ হয় ৩০ জুন।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »