ইসরাত পুনম »

রান্নার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপাদেনের নাম লবণ। এটি ছাড়া রান্না করার কথা চিন্তাই করা যায় না। তবে লবণ শুধু রান্নার স্বাদই বৃদ্ধি করে না, এর কিছু ভিন্ন ব্যবহারও আছে যা আমাদের কাছে অজানা। আসুন জেনে নেই সাধারণ লবণের কিছু অসাধারণ ব্যবহার সম্পর্কে।

১. ব্রণ সারাতে লবণ
ব্রণের উপর লবণ পানি ব্যবহার করুন। লবণ ব্রণকে সংকুচিত করে সহজে সারিয়ে তুলবে। দ্রুত ব্রণ সারিয়ে তুলতে চাইলে লবণ ব্যবহার করতে পারেন।

২. প্রাকৃতিক এয়ার ফ্রেশনার
আধা কাপ লবণের সাথে কিছু গোলাপের পাপড়ি অথবা ৩০ ফোঁটা এসেনশিয়াল অয়েল দিয়ে দিন। এরসাথে অর্ধেকটা কমলার খোসাও মেশাতে পারেন। এই মিশ্রণটি এয়ার ফ্রেশনার হিসেবে ব্যবহার করুন।

৩. পেঁয়াজের গন্ধ দূর করতে
পেঁয়াজ বা রসুন কাটার পর হাত গন্ধ হয়ে যায়। এই দূর্গন্ধ সহজে যেতে চায় না। এই দুর্গন্ধ দূর করে দেবে লবণ। হাত ভেজা অবস্থায় কিছু পরিমাণ লবণ নিন এবং তা দিয়ে হাত কিছুক্ষণ ঘষুন। তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৪. জিন্স পরিস্কার করতে
জিন্স পরিস্কার করতেও লবণ বেশ কার্যকরী। পানিতে ডিটারজেন্ট এবং ১ কাপ লবণ মিশিয়ে ময়লা জিন্স ১০ মিনিট ভিজিয়ে রাখুন। তারপর পানিটি ফেলে দিন এবং জিন্সটি ধুয়ে ফেলুন। এটি জিন্সের ময়লা পরিস্কার করে ফেলবে।

৫. জুতোর দুর্গন্ধ দূর করতে
অনেকের জুতোয় দুর্গন্ধ হয়। এই দুর্গন্ধ দূর করতে জুতোর মধ্যে লবণ ভরা একটি প্যাকেট অথবা কিছু লবণ ছিটিয়ে রাখুন। এভাবে দুই ঘন্টা জুতো রেখে দিন। লবণ জুতোর ভিতরের গন্ধ শুষে নিবে।

৬. রুপার জিনিস পরিষ্কার করতে
রুপার জিনিসপত্র মাসে একবার লবণ পানিতে ভিজিয়ে নিন। এটি রুপার জিনিসপত্রকে চকচকে করে তুলবে। এমনকি আপনার রুপার গয়না ১৫ মিনিট লবণ পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। আর দেখুন রুপার গয়না কেমন নতুনের মত চকচকে করছে।

৭. ফল দীর্ঘসময় সতেজ রাখতে
কাটা ফল দ্রুত কালো হয়ে যায়। কাটা ফলের উপর কিছু পরিমাণে লবণ ছিটিয়ে দিন। দেখেবন ফলের রং নষ্ট হচ্ছে সাথে ফল তাজা থাকছে দীর্ঘসময়।

৮. ওভেন পরিষ্কার করতে
২ টেবিল চামচ লবণ এবং পানি মিশিয়ে নিন। এবার এটি একটি কাপড়ে ভিজিয়ে নিয়ে ওভেনের ভিতরটি মুছে ফেলুন। দেখবেন ওভেনের ভিতরটি একদম নতুনের মত হয়ে গেছে।

৯. পানির দাগ দূর করতে
অনেক সময় কাঠের টেবিলে কফি বা চায়ের দাগ পড়ে থাকে। এই দাগ দূর করতে লবণ কার্যকরী। এক চা চামচ লবণ কয়েক ফোঁটা পানির সাথে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। এখন একটি নরম কাপড়ের টুকরোতে পেস্টটি লাগিয়ে দাগের উপর ঘষুন। দাগটি দূর হওয়ার আগ পর্যন্ত ঘষতে থাকুন। দেখবেন দাগ একদম গায়েব হয়ে গেছে।

১০. কাঁসার থালা বাসনের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে
কাঁসার থালা বাসন পরিষ্কার করতে লবণ, ভিনেগার এবং ময়দা একসাথে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি দিয়ে থালা বাসন পরিষ্কার করুন। দেখুন তো কেমন চকচকে করছে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »