বাবা-মেয়ের আত্মহত্যায় আরও একজন গ্রেপ্তার

গাজীপুরের শ্রীপুরে বাবা-মেয়েকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে করা মামলায় আরও এক আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

আজ বুধবার ভোরে উপজেলার কর্ণপুর গ্রাম থেকে ওই আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার হওয়া আসামি হলেন মো. সাহিদ (৪৫)। বাবার নাম নাজির উদ্দিন। বাড়ি উপজেলার কর্ণপুর গ্রামে।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসাদুজ্জামান বলেন, আজ ভোররাতে কর্ণপুর ছিটপাড়া গ্রাম থেকে সাহিদকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ নিয়ে এই মামলায় দুজন গ্রেপ্তার হলেন।

বাবা-মেয়েকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার মামলায় আগেই গ্রেপ্তার হন স্থানীয় গোসিঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য আবুল হোসেন ব্যাপারী। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁকে ইতিমধ্যে রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে।

গত শনিবার সকালে শ্রীপুর রেলস্টেশনের পশু হাসপাতাল-সংলগ্ন এলাকায় আট বছরের পালিত কন্যা আয়েশা আক্তারকে সঙ্গে নিয়ে ট্রেনের নিচে পড়ে আত্মঘাতী হন কর্ণপুর ছিটপাড়ার দিনমজুর হযরত আলী (৪৫)।

বাবা ও মেয়েকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগে ঢাকা রেলওয়ে থানায় একটি মামলা হয়। মামলায় ফারুক হোসেন, আবদুল খালেক, বোরহানউদ্দীন, আবদুল হামিদ, মো. সাহিদ, ফাইজুদ্দীন ও আবুল হোসেন ব্যাপারীকে আসামি করা হয়।