লাকী আখন্দের শেষ চাওয়া

বীর মুক্তিযোদ্ধা ও কিংবদন্তি সঙ্গীতশিল্পী লাকী আখন্দ শুক্রবার (২১ এপ্রিল) সন্ধ্যায় না ফেরার দেশে চলে যান। তবে মৃত্যুর আগে পরিবারের সদস্যদের কাছে নিজের শেষ ইচ্ছার কথা জানিয়ে গেছেন অসংখ্য জনপ্রিয় গানের এ স্রষ্টা।

লাকী আখন্দের মেয়ে মামিন্তি বলেন, ‘মৃত্যুর আগে বাবা কয়েকমাস ধরে অসুস্থ ছিলেন। বাবা একটা জিনিস সবসময় চাইতেন। সেটা হচ্ছে, তিনি মারা যাওয়ার পর যেন তার গানের প্রাপ্য সম্মান ও রয়্যালিটি পান। সেটা যেন তার পরিবারের কাছে ঠিকমতো পৌঁছায়।’

মামিন্তি বলেন, ‘বাবা সবসময় চেয়েছেন দেশের মানুষ তাকে মনে রাখবেন। একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা হয়েও তার কোনো অহংকার ছিল না।’

ফুসফুসের ক্যান্সারে আক্রান্ত লাকী আখন্দের অবস্থা শুক্রবার দুপুরের পর গুরুতর হলে সন্ধ্যায় তাকে আরমানিটোলার বাসা থেকে তাকে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে সেখানকার চিকিৎসকরা এ শিল্পীকে মৃত ঘোষণা করেন। মৃত্যুর সময় তার বয়স হয়েছিল ৬১ বছর।