যুক্তরাষ্ট্রের সেই ‘ফেইসবুক খুনির’ আত্মহত্যা

এক বৃদ্ধকে হত্যার পর সেই হত্যার ভিডিও ফেইসবুক পোস্ট করে আতঙ্ক ছড়ানো যুক্তরাষ্ট্রের আলোচিত ‘ফেইসবুক খুনি’ আত্মহত্যা করেছে। মঙ্গলবার পুলিশের ধাওয়ার মধ্যে পড়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই সে আত্মহননের পথ বেছে নেয়, খবর আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোর।

রোববার যুক্তরাষ্ট্রের ওহাইও অঙ্গরাজ্যের ক্লিভল্যান্ড শহরে প্রকাশ্য দিবালোকে ৭৪ বছর বয়সী রবার্ট গডুইনকে গুলি করে হত্যার পর থেকে পলাতক ছিল ৩৭ বছর বয়সী স্টিভ স্টিফেন্স। সে মানসিক বিকারে ভুগছিল বলে পুলিশের ধারণা।

ফেইসবুকে পোস্ট করা আরেকটি ভিডিওতে স্টিফেন্স জানিয়েছিলেন, এ পর্যন্ত ১৩ জনকে খুন করেছে সে এবং আরো খুন করতে চায়।

তার এই পোস্টের পর ওহাইও, ইন্ডিয়ানা, মিশিগান, নিউ ইয়র্ক ও পেনসিলভ্যানিয়া, যুক্তরাষ্ট্রের এই পাঁচটি অঙ্গরাজ্যে সতর্কতা জারি করা হয়। পাঁচ অঙ্গরাজ্যের পুলিশ তাকে হন্যে হয়ে খুঁজতে শুরু করে।

রোববার বিকেলে শেষবারের মতো তার মোবাইল ফোনের সিগন্যাল ট্র্যাক করা হয়, সে সময় সে পেনসিলভ্যানিয়ার ইরি এলাকায় ছিল।

সোমবার ক্লিভল্যান্ডের পুলিশ প্রধান ক্যালভিন উইলিয়ামস এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছিলেন, স্টিফেন্সের আগ্নেয়াস্ত্রের লাইসেন্স আছে এবং সে সশস্ত্র অবস্থায় আছে।
তার অবস্থান জানাতে সহায়তা করার জন্য ৫০ হাজার ডলার পুরস্কার ঘোষণা করেছিল ক্লিভল্যান্ডের কর্মকর্তারা।
গডুইনকে খুন করার প্রায় ৪৮ ঘন্টা পর প্রথমবারের মতো স্টিফেন্সের অবস্থানের বিষয়ে পরিষ্কার তথ্য পায় পুলিশ।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সকাল ১১টার একটু পর পেনসিলভ্যানিয়ার একটি চলতি পথে স্টিফেন্সকে দেখতে পায় স্থানীয় এক ফাস্টফুড দোকানের এক কর্মী। দেখেই সে কর্তৃপক্ষকে ফোন করে জানায়।

ক্লিভল্যান্ডের পুলিশ প্রধান ক্যালভিন উইলিয়ামস বলেন, “পশ্চাদ্ধাবন করার কিছুক্ষণের মধ্যেই তার গাড়িটি থামানো সম্ভব হয়। কর্মকর্তা তার গাড়ির দিকে এগোনোর সময় স্টিভ স্টিফেন্স আত্মহত্যা করেন।”

পেনসিলভ্যানিয়া পুলিশ জানিয়েছে, ওই ফাস্টফুডের দোকান থেকে প্রায় মাইলখানেক দূরে স্টিফেন্সের গাড়িটি থামানো সম্ভব হয়, পশ্চাদ্ধাবনের সময় সে গাড়ির গতিও বাড়ায়নি, গাড়ি থামানোর পর একটি পিস্তল দিয়ে নিজেকে গুলি করে সে।

ক্লিভল্যান্ড পুলিশ বিভাগ তার একটি ছবি প্রকাশ করে জানিয়েছিল, কৃষ্ণকায় এই ব্যক্তির বয়স ৩৭ বছর, উচ্চতা ছয় ফুট এক ইঞ্চি ও ওজন ১১০ কেজি।

যে বান্ধবীর সঙ্গে সম্পর্কচ্ছেদের পর স্টিফেন্স মানসিক স্থিরতা হারান বলে ধারণা করা হচ্ছে সেই জো লেন স্টিফেন্সকে ‘ভাল মানুষ ও দয়ালু’ বলে বর্ণনা করেছেন। এক ক্ষুদে বার্তায় যা কিছু ঘটেছে তার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন লেন।