এল ক্লাসিকোতেও নিষিদ্ধ হতে পারেন নেইমার

বার্সেলোনায় যোগ দেওয়ার পর এই প্রথম লাল কার্ড দেখলেন নেইমার। সেটিও এমন এক সময়ে, বার্সেলোনা যখন তাদের মৌসুমের সবচেয়ে টান টান সময়টায় ঢুকছে। নেইমারকে হারিয়ে ফেলার ধাক্কা কাল রাতেই ভালোমতো টের পেয়েছে বার্সেলোনা। মালাগার কাছে ২-০ গোলে হার লিগ শিরোপার স্বপ্ন অনেকটা ফিকে করে দিয়েছে। এই মুহূর্তে বার্সা–সমর্থকদের বড় প্রশ্ন—এল ক্লাসিকোতে নেইমার থাকবেন তো?

১৫ এপ্রিল রিয়াল সোসিয়েদাদের বিপক্ষে ম্যাচ বার্সার। এরপর এল ক্লাসিকো। ২৩ এপ্রিল বার্নাব্যুতে গিয়ে খেলতে হবে রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে। নেইমার আপাতত সোসিয়েদাদ ম্যাচটির জন্য নিষিদ্ধ। তবে তাঁর শাস্তির মাত্রা বাড়তেও পারে।
কাল নেইমার ২৭ মিনিটে প্রথম হলুদ কার্ড দেখেন। ৬৫ মিনিটে যখন লাল কার্ড দেখলেন, প্রথমেই প্রশ্ন উঠেছিল, এটা কি সরাসরি লাল কার্ড, নাকি দ্বিতীয় হলুদ কার্ডের যোগফল? সরাসরি লাল কার্ড দেখার শাস্তি হলো দুই ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ। কাল রেফারি গিল মানজানো অবশ্য নিশ্চিত করেছেন, সরাসরি লাল কার্ড নেইমার দেখেননি।
তবে তাতেও স্বস্তি মিলছে না বার্সা–সমর্থকদের। কারণ লাল কার্ড দেখার পর নেইমার যে বিদ্রূপের ভঙ্গি করেছেন, এতেই তাঁর শাস্তিটার মাত্রা বাড়তে পারে। স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক এএস দিয়েছে এই খবর। ড্রেসিংরুমে যাওয়ার পথে নেইমার চতুর্থ রেফারিকে উদ্দেশ করে হাততালিও দেন। এএস লিখেছে, নেইমার চতুর্থ রেফারির দিকে তাকিয়ে যে বিদ্রূপের ভঙ্গি করেছেন, তা শৃঙ্খলাবিধির ১১৭ নম্বর ধারায় অপরাধ। ম্যাচ কর্মকর্তাদের প্রতি অবজ্ঞা বা ঘৃণা প্রকাশ করা যাবে না। এর ফলে নেইমার আরও এক ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হতে পারেন।
দুই ম্যাচ নিষিদ্ধ হলেই আর নেইমার এল ক্লাসিকো খেলতে পারবেন না। এমনিতেই গত ম্যাচের রেফারিং নিয়ে বার্সেলোনা ক্ষুব্ধ। নিষেধাজ্ঞার শাস্তি এড়াতে ম্যাচ শেষে লুইস এনরিকে যথেষ্ট হিসেব করে কথা বলেছেন। কারণ, তিনিও ক্ষোভ প্রকাশ করলে ডাগআউটে নিষিদ্ধ হয়ে যেতে পারতেন। সেটি বার্সার জন্য হতো বিষফোঁড়া।