বার্তাবাংলা ডেস্ক »

Dating App

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে আপ্যায়নে ইলিশ মাছ রাখতে চেয়েছিলেন ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি; কিন্তু তা মেলেনি বলে খবর দিয়েছে আনন্দবাজার।
কলকাতার দৈনিকটি বলছে, ইলিশ না পেয়ে মাছের মধ্যে ভেটকির পাতুরি, চিংড়ির মালাইকারি ও চিতল পেটির মুইঠ্যা বানানো হয়েছে শেখ হাসিনার আপ্যায়নে।

ভারতে এবারের সফরে নয়া দিল্লিতে রাষ্ট্রপতি ভবনে থাকছেন শেখ হাসিনা। কোনো সরকার প্রধানের ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনে আতিথ্য পাওয়া বিরল ঘটনা বলে দেশটির কূটনীতিকরা জানিয়েছেন।

মোট তিন দিন রাষ্ট্রপতি প্রণবের আতিথ্যে কাটাবেন শেখ হাসিনা। ওই ভবনের ফ্যামিলি কিচেনে শুধু রাষ্ট্রপতি ও তার নিকটাত্মীয়দের জন্যই রান্না হয়। সেখানে শেখ হাসিনাকে খাওয়ানোর তোড়জোড় এক সপ্তাহ আগেই শুরু হয়েছে বলে আনন্দবাজার জানায়।

পত্রিকাটি বলছে, শেখ হাসিনার জন্য টাটকা ইলিশ না পাওয়ায় রাষ্ট্রপতির হেঁশেলের আফসোস যাচ্ছে না।
“রাষ্ট্রপতি ভবনের ৩২ জন প্রধান রাঁধুনি (চিফ শেফ) বারবার আলোচনা করছেন নিজেদের মধ্যে। বাংলাদেশ সরকারের কাছ থেকে আগেই জেনে নেওয়া হয়েছে হাসিনার পছন্দ-অপছন্দ কী? পশ্চিমবঙ্গের প্রথম সারির পাচকদের সঙ্গে প্রাথমিক আলোচনা সেরে নেওয়া হয়।”

রকমারি মাছের বিভিন্ন খাবারের সঙ্গে মিষ্টান্নের মধ্যে রাজভোগ রাখা হচ্ছে শেখ হাসিনাকে আপ্যায়নে। থাকছে মুর্গ দরবারি, গোস্ত ইয়াখনি, রাইজিনা কোফতা, আলু বুখারার মতো উত্তর ভারতের বিশেষ খাবার।

প্রণব মুখার্জি ইলিশ খাওয়াতে না পারলেও তার খাওয়ার জন্য ২০টি ইলিশ উপহার নিয়ে গেছেন শেখ হাসিনা।

এছাড়া সাদা সিল্কের পাঞ্জাবি ও পায়জামা, চিত্রকর্ম, ডিনার সেট, চামড়ার ব্যাগ সেট, চার কেজি করে চমচম ও রসগোল্লা, দুই কেজি করে সাদা সন্দেশ ও গুড়ের সন্দেশ এবং দুই কেজি দই উপহার নিয়ে গেছেন তিনি।

পশ্চিমবঙ্গের বাঙালি প্রণব মুখার্জির সঙ্গে শেখ হাসিনার ব্যক্তিগত সম্পর্কও মধুর। প্রণব মুখার্জির শ্বশুরবাড়ি নড়াইলে হওয়ায় বাংলাদেশের সঙ্গে তার সম্পর্ক হৃদ্যত্বপূর্ণ।

রাষ্ট্রপতি হওয়ার পর সস্ত্রীক বাংলাদেশে গিয়ে নড়াইলে শ্বশুরবাড়ি গিয়েছিলেন প্রণব মুখার্জি। তখন শেখ হাসিনা যে তাকে ইলিশে আপ্যায়িত করেছিলেন, তা তিনি সাংবাদিকদেরও জানিয়েছিলেন।

Dating App
শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »