সারাদেশে জামাত-শিবিরের সহিংসতা রাষ্ট্রদ্রোহের শামিল : সংসদে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী » Leading News Portal : BartaBangla.com

বার্তাবাংলা ডেস্ক »

parliament06বার্তবাংলা রিপোর্ট :: হরতালের নামে সারাদেশে জামাত-শিবিরের সহিংসতায় ৬৭ জন মারা গেছে—এ তথ্য দিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহীউদ্দীন খান আলমগীর জানান, এর দায় জামাতকেই নিতে হবে। মঙ্গলবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে তিনি এ কথা বলেন।

জাতীয় সংসদের নির্ধারিত কর্মসূচি স্থগিত রেখে পয়েন্ট অব অর্ডারে বক্তব্য রাখেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহীউদ্দীন খান আলমগীর।

বৃহস্পতিবার যুদ্ধাপরাধী দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীয় ফাঁসির রায়ের পর থেকে গত কয়েকদিনে জামাত-শিবির দেশজুড়ে যে হত্যযজ্ঞ, সহিংসতা ও ক্ষয়ক্ষতি করেছে তার পূর্ণবিবরণ তুলে ধরেন তিনি।

তার বক্তব্যে জামাত-শিবির রাজধানী ঢাকাসহ চাপাইনবাবগঞ্জের কানসাটের পল্লীবিদ্যুতের অফিসে হামলা, রাজাশাহী, দিনাজপুর, রংপুর, সিরাজগঞ্জ, সাতক্ষীরাসহ অন্যান্য প্রতিটি জেলায় আওয়ামী লীগ অফিস ও নেতাকর্মীদের বাড়িতে হামলা, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, সরকারি অফিস, সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা, থানা ও পুলিশ-বিজিবির ওপর হামলা, ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ, ও হতাহতের পূর্ণ বিবরণ উঠে আসে।

প্রতিটি হামলাই বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের নেতৃত্বে স্থানীয় নেতাকর্মীদের সক্রিয় সহযোগিতায় হয়েছে—এ দাবিও করেন তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, জামাত-শিবির যে ধরনের নাশকতা চালাচ্ছে তা রাষ্ট্রদ্রোহিতার শামিল। আর তাদেরকে নৈতিক ও আদর্শিকভাবে সমর্থন জানিয়ে বিএনপি তাদের ফ্যাসিবাদি চরিত্রই দেশবাসীর কাছে প্রকাশ করেছে।

তবে সুশীল সমাজ, ব্যবসায়ী ও সাধারণ জনগণ জামাত ও বিএনপির হরতাল সম্পূর্ণভাবে প্রত্যাখ্যান করেছে বলেও দাবি করেন তিনি।

তবে জামাত-শিবিরের চালানো টানা সহিংসতা, সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা, লুটপাট, ভাঙচূরের বর্ণণা দিলেও দেশের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সরকারের সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আছে বলেও দাবি করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

একইসঙ্গে পুলিশ বাহিনীকে সহযোগিতায় দেশের প্রতিটি মানুষকে এগিয়ে আসারও আহ্বান জানান তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এ কয়েকদিনে পুলিশসহ ৬৭ জনের মৃত্যুর ঘটনায় ও সহিংসতার অভিযোগে আটক ১ হাজার ৫৭২ জনের বিরুদ্ধে দেশের প্রচলিত আইনেই মামলা দায়ের করা হয়েছে বা হচ্ছে।

এছাড়া আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি রক্ষায় পুলিশ বাহিনী যে ধৈর্য্য ও সাহসিকতা দেখিয়েছে তা প্রশংসাযোগ্য।

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »