ব্লগার হত্যার সূচনাকারী সেই রেদওয়ানুল ফের রিমান্ডে

ব্লগার আহমেদ রাজীব হায়দার হত্যা মামলায় ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি রেদওয়ানুল আজাদ রানাকে উত্তরা পশ্চিম থানার আরেকটি মামলায় ফের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। ঢাকার মহানগর হাকিম আবদুল্লাহ আল মাসুদ তাঁর তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

পাঁচ দিনের রিমান্ড শেষ আজ সোমবার রানা ও অপর আসামি আশরাফুলকে আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় রানার ফের সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করা হয়। আদালত শুনানি শেষে তিন দিন মঞ্জুর করেন ও আশরাফকে কারাগারে পাঠান।

আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের (বর্তমান নাম আনসার আল ইসলাম) অন্যতম সংগঠক রেদওয়ানুল নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির ইলেকট্রিক ও ইলেকট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রাক্তন ছাত্র।

ঢাকা মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের কর্মকর্তারা বলেছেন, রাজীবকে হত্যার পর রেদওয়ানুল মালয়েশিয়ায় পালিয়ে যান। তিনি আগে আল-কায়েদার মতাদর্শ অনুসরণকারী আনসারুল্লাহর সঙ্গে যুক্ত থাকলেও মালয়েশিয়ায় জঙ্গি সংগঠন আইএসের দিকে ঝুঁকে পড়েন। সিরিয়ায় যাওয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। তিনি ফিলিপাইনে আবু সায়াফ জঙ্গি দলের কাছে যাওয়ার সময় মালয়েশিয়ায় ধরা পড়েন।

২০ ফেব্রুয়ারি রেদওয়ানুল ও আশরাফ নামে তাঁর এক সহযোগীকে দেশে ফেরত পাঠায় মালয়েশিয়া কর্তৃপক্ষ। পরে উত্তরা থেকে দুজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট। ইউনিটটির প্রধান মনিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান।

এ ঘটনায় কাউন্টার টেররিজমের পরিদর্শক তাজুল ইসলাম বাদী হয়ে সন্ত্রাসবিরোধী আইনে রানা ও আশরাফের বিরুদ্ধে মামলা করেন।