বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্যে চলছে বিএনপির হরতাল » Leading News Portal : BartaBangla.com

বার্তাবাংলা ডেস্ক »

ctgবার্তাবাংলা ডেস্ক :: ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, গাড়ীতে আগুন দেয়া, টেম্পু ভাংচুর সহ বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনা বাদ দিলে বড় ধরনের কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই চট্টগ্রামে বিএনপির ডাকা হরতাল চলছে। জেলার কোথাও কোন বড় ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

হরতালকে কেন্দ্র করে নগরীতে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। অন্যদিকে হরতাল সফল করতে নগর বিএনপির সভাপতি আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, মীর মোহাম্মদ নাসির উদ্দিনসহ বিএনপি নেতারাও মাঠে রয়েছেন।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) মোস্তাক আহমেদ বলেন, ‘নগরীতে প্রায় এক হাজার ৬’শ পুলিশ মোতায়েন আছে। ৠাবের প্রায় সাড়ে তিন’শ সদস্য মোতায়েন আছে। কেউ অপ্রীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে চাইলে কঠোরভাবে দমন করা হবে।’

এদিকে নগর নগর বিএনপির দলীয় কার্যালয় নাসিমন ভবনের সামনের রাস্তা, কাজির দেউড়ি, বহদ্দারহাট, বাকলিয়া, কালামিয়াবাজার, তৃতীয় কর্ণফুরী সেতুর উত্তর পাশসহ বেশ কয়েকটি স্পটে জমায়েত হয়ে মিছিল-সমাবেশ করছেন বিএনপির নেতাকর্মীরা।

হরতাল শুরুর পর সকাল সাড়ে ৮টার দিকে নগরীর কাজীর দেউড়িসহ আশপাশের এলাকায় মিছিল-সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে নেতৃত্ব দেন আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও মীর মো.নাছির উদ্দিন।

এছাড়া আমির খসরুর নেতৃত্বে নগরীর দেওয়ানহাট, চৌমুহনী মোড়, পাহাড়তলী, অলংকার মোড় এবং একেখান মোড়ে হরতালের সমর্থনে মিছিল হয়েছে।

হরতাল শুরুর পর ভোর সাড়ে ৬টার দিকে নগরীর বাকলিয়া থানার বিএনপির সভাপতি ও নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ডা.শাহাদাত হোসেনের নেতৃত্বে চকবাজার থেকে হরতালের সমর্থনে একটি মিছিল বের করা হয়।

সকাল ৮টার দিকে নগর মহিলা দলের সভাপতি ও কাউন্সিলর মনোয়ারা বেগম মণি’র নেতৃত্বে লালখান বাজার এলাকায়, সকাল ১০টার দিকে নগর বিএনপির সহ-সভাপতি আবু সুফিয়ানের নতৃত্বে বহদ্দারহাট এলাকায় চান্দগাঁও থানা বিএনপি মিছিল বের করে।

সাড়ে ১০ দিকে দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতি সাংসদ জাফরুল ইসলামের নেতৃত্বে তৃতীয় কর্ণফুলী সেতুর উত্তর পাশে এবং সকাল সোয়া ১১টার দিকে নাসিমন ভবনের সামনে থেকে উত্তর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আসলাম চৌধরীর নেতৃত্বে  মিছিল বের করা হয়েছে।

এছাড়া সকাল ৬টার দিকে বাকলিয়া থানা ছাত্রদল সভাপতি গাজী সিরাজের নেতৃত্বে চকবাজার থেকে একটি মিছিল বের করা হয়।

মিছিল চলাকালে বিভিন্ন স্থানে হরতাল সমর্থকরা যানবাহন চলাচলে বাধা দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে পুলিশ ধাওয়া দিলে হরতাল সমর্থকরা পালিয়ে যায়।

নগরীর চান্দগাঁও থানার সিএন্ডবি এলাকায় একটি মিছিল থেকে চলন্ত গাড়িতে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করলে পুলিশ ধাওয়া দিয়ে একজনকে আটক করে। এসময় পুলিশের সঙ্গে হরতালকারীদের মৃদু ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

চকবাজার থেকে ছাত্রদলের একটি মিছিল রাহাত্তারপুল এলাকায় এলে গাড়ি ভাংচুরের চেষ্টা করলে পুলিশ ধাওয়া দিলে মিছিলটি ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়।

চান্দগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বাবুল চন্দ্র বণিক বলেন, ‘হরতাল সমর্থকদের মিছিল থেকে চলন্ত গাড়িতে ঢিল ছুড়ে মারলে পুলিশ ধাওয়া দেয়। এসময় পিকেটাররা পালিয়ে যাওয়ার সময় একজনকে আটক করা হয়।’

এদিকে সকাল ১১টার দিকে মনোয়ারা বেগম মনির নেতৃত্বে ওয়াসা মোড় মিছিল বের করা হলে সেখানে ছাত্রলীগের একটি মিছিল শুরু করে। এত ওই এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এছাড়া নগরীর কোথাও অপ্রীতিকর কোন ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »