নাক ডাকা কমানোর উপায়

স্বামী, স্ত্রী একে অপরের নাক ডাকার কারণে সারারাত ঘুমোতে পারেন না – এটা নতুন কথা নয়। এ নিয়ে সংসারে শুরু হয় অশান্তি। পশ্চিমা বিশ্বেতো এ কারণে ডিভোর্স পর্যন্ত হয়ে থাকে। নাক ডাকা কিন্তু ঘুম সংক্রান্ত একটি ব্যধি। নাক ডাকার আওয়াজ ও পরিমাণ অস্বাভাবিক হলে সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত। তবে কিছু বিষয় মেনে চললে নাক ডাকা থেকে কিছুটা হলেও রেহাই পাওয়া যায়।

১. প্রথমে এলাচের দানা গুঁড়া করে রেখে দিন। প্রতিদিন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার সময় এক গ্লাস ঈষৎ গরম পানিতে ১/২ চামচ এলাচ গুঁড়া মিশিয়ে খেলে কাজে দেবে।

২. চিত হয়ে ঘুমানোর থেকে যদি একদিক করে ঘুমালে নাক ডাকা অনেক কম হয়।

৩. রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে দুধ থেকে দূরে থাকতে হবে। কারণ ঘুমানোর আগে দুধ খেলে মুখে ও গলায় শ্লেষ্মার একটা পরত জমে যায়। ফলে নাক ডাকার আওয়াজ আরও বেড়ে যায়।

৫. রাত ৮টার পর একেবারে পেট ভরে ভারি খাবার খাবেন না বা খাওয়ার ঠিক পরেই ঘুমানো ঠিক নয়। একেতো সন্ধ্যার পর শরীরের যন্ত্রাদি কাজের গতি মন্থর করে। তখন যদি অতিরিক্ত খাবার পেটে যায় পাচন যন্ত্রকে অতিরিক্ত শক্তি লাগাতে হয় তখন। ফলে ঠিক করে শ্বাস নিতে সমস্যা হয়। তখনই নাক ডাকার আওয়াজ উৎপন্ন হয়।

৬. অ্যালকোহল এবং ধূমপান উভয়ের প্রভাবেই নাক ডাকার আওয়াজ ভয়ঙ্কর থেকে ভয়ঙ্করতর হতে পারে। কারণ এই ধরণের নেশা আমাদের পেশীকে বিশ্রাম দেয়, ফলে স্বাভাবিক কাজ বাধা পায়। যার ফলেও নাক ডাকার সমস্যা হয়। তাই বিশেষ করে শুতে যাওয়ার আগেই ধূমপান করবেন না।