বার্তাবাংলা ডেস্ক »

italyএ কে জামান, ইতালী থেকে :: প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ ব্যাংকের আয়োজনে ইতালীর রাজধানী রোমের পাচ তারকা হোটেল রেডিসন এ অনুষ্ঠিত হলো রেমিটেন্স এবং বিনিয়োগ মেলা ২০১৩। জামার্নী, ইতালীর মিলান ও নাপোলীর পরে গতকাল ৩রা মার্চ ছিল এই আয়োজনের শেষ পর্ব রোমে। অনুষ্ঠানে ব্যাপক প্রবাসীদের সমাগম ঘটে।প্রবাসীদের  বিনিয়োগ সম্পর্কিত বিভিন্ন  তথ্য নিয়ে ১০ টি আলাদা ষ্টলে বিভিন্ন তথ্য দিয়েছেন বাংলাদেশ থেকে আগত বিভিন্ন ব্যাংকের কর্মকর্তাবৃন্দ।

ব্রাক ব্যাংকের প্রবাসী ব্যাংকিং এবং বিক্যাশ নামে মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিস নিয়ে প্রবাসীদের বেশ আগ্রহ ছিল লক্ষনীয়। এনসিসি ব্যাংক তাদের ষ্টলে প্রদর্শন করে প্রবাসীদের জন্য এমব্রীজ নামে বিশেষ রেমিটেন্স কার্ড। এই কার্ডটি প্রবাসীদের প্রেরিত অর্থ সরাসরি এই কার্ডে লোড হয়ে থাকে এবং কার্ডটি বিনামূল্যে ব্যাংক থেকে দেয়া হয়। ফলে যেকোনসময় এনসিসি ব্যাংকের যেকোন শাখা থেকে কিংবা এটিএম বুথ থেকে টাকা তোলা যায়। এখানে ৫ বছরে দিগুন এবং ৯ বছরে তিনগুন আমানত প্রকল্পের তথ্য প্রবাসীদের কাছে তুলে ধরা হয়। পূবালী ব্যাংক তাদের দেশব্যাপী ৪১৯টি শাখার তালিকা প্রবাসীদের হাতে তুলে দেন। এখানে প্রবাসী লোন প্রকল্প সম্পর্কেও তথ্য দেয়া হয়। অগ্রনী ব্যাংক ষ্টলে প্রবাসীদের জন্য জামানতবিহীন লোন কর্মসূচীর তথ্য সরবরাহ করেছে। এখানে মাসিক আয়, মাসিক ডিপোজিট স্ড়্গীম, মেয়াদ আমানতসহ বিভিন্ন প্রকল্পের তথ্য দেয়া হয়। এছাড়া হুন্ডীর মাধ্যমে প্রেরন করা টাকার নানা ঝুকি নিয়ে একটি তথ্যবহুর প্রচারপত্র বিলি করে অগ্রনী ব্যাংক। জনতা ব্যাংক ৫বছর মেয়াদী ওয়েজ অর্নারস ডেভলপমেন্ট বন্ড, বৈদাশিক মুদ্রা হিসাব খোলার পদ্ধতি প্রবাসীদের কাছে তুলে ধরে। রম্নপালী ব্যাংক তাদের ষ্টলে স্বপ্ন, রম্নপসী নামে বিভিন্ন ধরনের প্রকল্প ছাড়াও রুপালী দ্বিগুন এবং রুপালী তিনগুন বৃদ্ধি আমানত প্রকল্প এর বিভিন্ন তথ্য প্রবাসীদের কাছে তুলে ধরে। মার্কেন্টাইল ব্যাংকও তাদের ষ্টলে বিভিন্ন সঞ্জয় প্রকল্প এর তথ্য প্রবাসীদের কাছে বিলি করে। ফার্ষ্ট সিকিউরিটি ব্যাংক তাদের ষ্টলে মুদারাবা আমানত দিগুন বৃদ্ধি প্রকল্প সাথে ফ্রি ১ লক্ষ টাকার জীবন বীমা সুবিধা, মুদারাবা মাসিক জমা প্রকল্প প্রবাসীদের কাছে উপস্থাপন করে। বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে আপনার বিনিয়োগ দেশের ভবিষৎ শিরোনামে একটি প্রচারপত্র প্রবাসীদের হাতে তুলে দেয়া হয়। এখানে ইউএস ডলার ইনভেষ্টমেন্ট বন্ড, ইউএস ডলার প্রিমিয়াম বন্ড এবংওয়েজ আর্নার ডেভলপমেন্ট বন্ডের বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরা হয়।

সন্ধ্যা ৬টায় শুরু হ্‌ওয়া মুল অনুষ্ঠানে আয়োজনের ইভেন্ট ম্যানেজার বিশ্বাস মালেক টিপু উপস্থিত প্রবাসীদের স্বাগত জানান। ‌এরপর একে একে বক্তব্য রাখেন অগ্রনী ব্যাংকের ডিজিএম বাবুল ইসলাম, রুপালী ব্যাংকের হেড অফ রেমিটেন্স মো আশরাফুজ্জামান, মার্কেন্টাইল ব্যাংকের তরিকুল ইসলাম, এনসিসি ব্যাংকের ডিএমডি আখতার হামিদ খান, ব্রাক-সাজন এক্সচেঞ্জ কোম্পানীর ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুস সালাম, সিটি ব্যাংকের ডিএমডি হেলাল অহমেদ চৌধুরী, ন্যাশনাল এক্সচেঞ্জের প্রধান নির্বাহী ইকরাম ফরাজী, জনতা এক্সচেঞ্জ কোম্পানীর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ মাহাবুবুর রহমান।
বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে নির্বাহী পরিচালক মাহফুজুর রহমান এবং সুধীর চন্দ্র দাস অনুষ্ঠানে আগত প্রবাসীদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন। তারা জানান অচিরেই ইউরো কারেন্সীতেও সরকারী বন্ড কেনার সুবিধা পা্‌ওয়া যাবে। এ সংক্রান্ত চুড়ান্ত অনুমোদনের ফাইল এখন অর্থমন্ত্রীর কাছে রয়েছে। প্রবাসীদের প্রশ্নের জবাবে তারা আরো বলেন প্রবাসী কল্যান ব্যাংক প্রবাসীদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের জন্যই স্থাপন করা হয়েছে। এছাড়া এনআরবি ব্যাংকগুলো কার্যক্রম শুরু করলে প্রবাসীরা আরো নানারকম সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।

আগে ধারন করা ভিডিও বক্তৃতায় বাংলাদেশ ব্যাংকের গর্ভনর আতিয়ার রহমান বলেন অবৈধভাবে টাকা প্রেরন করা হলে এটি মাদক ও অস্ত্রব্যাবসায়ীদের হাতে চলে যাবে। তিনি  সকল প্রবাসীদের হুন্ডির মাধ্যমে দেশে টাকা না পঠিয়ে, বৈধ বা ব্যাকিং খাতের মাধ্যমে টাকা পাঠানোর জন্য আহবান জানান। তিনি আরো বলেন, বৈধ উপায়ে দেশে রেমিটেন্স পাঠানোর জন্য বাংলাদেশের অধিকাংশ ব্যাংকে অনলাইন ব্যাংকিং চালু করা হয়েছে, যার মাধ্যমে মাত্র  ৩ মিনিটে দেশের যেকোন জায়গা থেকে প্রেরিত অর্থ উত্তোলন করা সম্ভব। প্রবাসে থেকেও  ইউ এস ডলার ইনভেস্টমেন্ট বন্ড, ইউ এস ডলার প্রিমিয়াম বন্ড, ওয়েজ আর্নার ডেভেলপমেন্ট বন্ড ক্রয়ের মাধ্যমে কষ্টার্জিত অর্থ সম্পূর্ন নিরাপদ ও লাভজনক বিনিয়োগ করা সম্ভব।

অনুষ্ঠানে বাংলা কমিউনিটির নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন লোকমান খান, শাহ তাইফুর রহমান ছোটন, হেনরী ডি কষ্টা এবং আয়োজনের ইতালী প্রতিনিধি হোসনে আরা বেগম।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইতালীতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্টৃদূত শাহাদৎ হোসেন প্রবাসীদের স্বাগত জানিয়ে দেশের উন্নয়নের স্বার্থে বৈধ চ্যানেলে টাকা প্রেরনের আহবান জানান।

সভাপতির বক্তব্যে ফার্ষ্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের ডিএমডি আবুদল কুদ্দুস ১০ টি ব্যাংকের এই আয়োজনে তাদেরকে লীড ষ্পন্সর ব্যাংক হিসেবে গন্য করায় বাংলাদেশ ব্যাংককে ধন্যবাদ জানান। তিনি প্রবাসীদের বলেন তাদের উদ্দেশ্য বৈধ চ্যানেলে টাকা পাঠানের সুবিধা সর্ম্পকে প্রবাসীদের আরো উৎসাহী করে তোলা। কারন রেমিটেন্স দেশের অর্থনীতির একটি প্রধান চালিকাশক্তি।

এরপরে বিভিন্ন এক্সচেঞ্জ কোম্পানীর পক্ষ থেকে সর্বাধিক রেমিটেন্স প্রেরনকারী রেমিটারদেরকে ক্রেষ্ট এবং সম্মাননা সনদ তুলে দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে সুস্মিতার উপস্থাপনায় ইতালী প্রবাসী শিল্পীদের নিয়ে একটি মনোজ্ঞ সাংষ্কৃতিক অনুষ্টান পরিবেশন করা হয়।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »