বিমানযাত্রীর পেটে ১৫টি সোনার বার!

ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আজ শনিবার জোবায়ের আক্তার নামের এক যাত্রীর কাছ থেকে ১৫টি সোনার বার উদ্ধার করা হয়েছে। এই সোনার ওজন দেড় কেজি।

ঢাকা কাস্টম হাউসের প্রিভেনটিভ টিমের প্রধান ও সহকারী কমিশনার এইচ এম আহসানুল কবির বলেন, মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুর থেকে আজ সকালে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইট আসে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই ফ্লাইটের যাত্রী জোবায়েরকে গ্রিন চ্যানেল এলাকায় আটকে চ্যালেঞ্জ করা হয়। তখন তিনি সঙ্গে সোনা রাখার বিষয়টি অস্বীকার করেন। পরবর্তীতে এক্স-রে করালে তাঁর পেটে স্বর্ণের অস্তিত্ব পাওয়া যায়।

আহসানুল কবিরের ভাষ্য, প্রথমে জোবায়েরকে বুঝিয়ে-সুজিয়ে পেটে লুকানো সোনার বারগুলো স্বেচ্ছায় বের করে দিতে বলা হয়। ওই যাত্রী তখন দাবি করেন, ওনার পেটে বিমানে খেয়ে আসা নাশতা ছাড়া কিছু নেই। এক্স-রে দেখালে জোবায়ের বলেন, ঘুমের ঘোরে মালয়েশিয়ান বন্ধুরা তাঁকে কি খাইয়েছেন, তা তিনি জানেন না বলে দাবি করতে থাকেন। এভাবে দুই ঘণ্টা যাওয়ার পর তাঁকে প্রচুর পরিমাণে পানি পান করানো হয়। এরপর তাঁর পেট থেকে বের হয় ১৫টি সোনার বার। দেড় কেজি ওজনের এসব সোনার মূল্য প্রায় ৭৫ লাখ টাকা।

ঢাকা কাস্টম হাউস সূত্র জানায়, জোবায়েরের বাড়ি নড়াইলে।