মুচমুচে আলু পরোটা রেসিপি

শুধু নাস্তায় নয়, যে কোনো সময়েই খাওয়া যায় এমন একটি খাবার হলো আলু পরোটা। মুচমুচে পরোটার ভেতরে নরম, মশলাদার আলুর পুর কার ভালো না লাগবে বলুন? গরম গরম খেতে তো ভালো লাগবেই, লাঞ্চের জন্য টিফিন বক্সে রেখে দিলেও খেতে পারবেন মজা করে। চলুন জেনে নিই স্বাস্থ্যকর রেসিপিটি।

উপকরণ

খামিরের জন্য

১. সোয়া দুই কাপ হোল হুইট ময়দা

২. ২ টেবিল চামচ ঘি

৩. লবণ স্বাদমতো

পুরের জন্য

১. আড়াই কাপ সেদ্ধ, চটকানো আলু

২. ২ চা চামচ ঘি

৩. ১ চা চামচ জিরা

৪. আধা কাপ পিঁয়াজ, মিহি কুচি

৫. ১ টেবিল চামচ কাঁচামরিচ, মিহি কুচি

৬. লবণ স্বাদমতো

৭. আধা চা চামচ মরিচ গুঁড়ো

৮. ২ টেবিল চামচ ধনেপাতা কুচি

৯. ২ চা চামচ আমচুর

১০. রুটি বেলার জন্য আটা

১১. রুটি ভাজার জন্য ঘি

১২. পরিবেশনের জন্য দই

প্রণালি

খামিরের জন্য ময়দা, গলানো ঘি এবং লবণ একটি পাত্রে নিন। অল্প করে পানি নিয়ে পরোটার খামির তৈরি করে রাখুন। পুর তৈরির জন্য কড়াইতে ঘি গরম করে নিন। এতে জিরা দিন। জিরা ফুটতে থাকলে পিঁয়াজ দিয়ে দিন। মাঝারি আচে ২ মিনিট সাঁতলে নিন। এরপর কাঁচামরিচ দিয়ে ১ মিনিট নেড়ে নিন। এতে দিয়ে দিন আলু, লবণ, মরিচ গুঁড়ো, ধনেপাতা এবং আমচুর, নেড়েচেড়ে মিশিয়ে নিন। মাঝারি আঁচে কয়েক মিনিট ভেজে নিন। আলুর পুরটা নামিয়ে নিন। ১২ ভাগে ভাগ করে রাখুন। খামিরটাকে ১২ ভাগে ভাগ করে নিন। ৪ ইঞ্চি ব্যাসের রুটি বেলে নিন। রুটির মাঝে এক ভাগ পুর রেখে রুটির কোণাগুলো মাঝে নিয়ে আসুন। সিল করে দিয়ে আবার রুটিটাকে বেলে নিন। তাওয়া গরম করে নিন। এতে অল্প করে ঘি দিয়ে পরোটা ভেজে নিন। বাকি পরোটাগুলো ভেজে নিন এভাবে। দই দিয়ে পরিবেশন করুন গরম গরম মুচমুচে আলু পরোটা।