জঙ্গি আস্তানার ভেতরে ডিএমপি কমিশনার

রাজধানীর দক্ষিণখান অশকোনায় জঙ্গি আস্তানার ভেতরে ঢুকেছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ-ডিএমপির কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। এর কিছুক্ষণ পর (দুপুর সোয়া ২টায়) সেখানে ঢুকে সিআইডির ক্রাইম সিন ইউনিট।

‘আত্মঘাতী’ ভেস্ট পরে আত্মহত্যার চেষ্টা করতে গিয়ে গুরুতর আহত হন জঙ্গি সুমনের স্ত্রী, তিনি মারা গেছেন বলে পুলিশের কয়েকটি সূত্র জানিয়েছে। আর ঘরের ভেতরে শুয়ে আছেন পুলিশের টিআরসেলে আহত আফিফ কাদের অরিফ (১৪), তবে তার কাছে আরও গ্রেনেড আছে কিনা নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না। তা নির্ণয়ে সময় নিচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

জানা যায়, পুলিশের এই ঊর্ধ্বতন টিম সেই পরিস্থিতি পরিদর্শনে কাজ করছেন। বেরিয়ে তারা ব্রিফ করবেন।

ওই নারীর বিস্ফোরণকে আত্মঘাতী বলে জানান, পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের প্রধান মো. মনিরুল ইসলাম। তার এই কাণ্ডে পাশে থাকা ৮ বছরের এক মেয়ে শিশু গুরুতর আহত হয়েছেন, তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে বলে জানান, ডিবি পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (এডিসি) মো. শাহজাহান।

শনিবার (২৪ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১২টা নাগাদ আনুষ্ঠানিক অভিযান শুরু হয়। অভিযান শুরুর পরপর নারী জঙ্গি গ্রেনেড নিক্ষেপ করেন। এতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দুই-তিনজন সদস্য আহত হন।

মো. শাহজাহান জানান, তিনি মারা গেছেন কিনা এখনও নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না।

মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, বাড়ির ভেতরে থাকা তিনজনকে আত্মসমর্পণ করতে বললে বোকরা পরা সেই নারী ধীরে ধীরে হেঁটে ঘরে থেকে বের হন। তখন তাকে হাত উঁচু করতে বললে তিনি তা করে ফের নামিয়ে নেন এবং বোরখা পরা থাকায় বোঝা যাচ্ছিল না তার কোমরে সুইসাইডাল ভেস্ট রয়েছে কিনা। সঙ্গে সঙ্গে তিনি ঘরের দরজার কাছে এসে বিস্ফোরণ ঘটান। লুপিয়ে পড়েন মাটিতে।