মঙ্গলবার সারাদেশে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল: খালেদা জিয়া » Leading News Portal : BartaBangla.com

বার্তাবাংলা ডেস্ক »

khaleda pressবার্তবাংলা রিপোর্ট  :: সরকারের দুর্নীতি, দুশাসন, নির্যাতন-নিপীড়ন ও গণহত্যার প্রতিবাদে আগামী মঙ্গলবার হরতাল পালনে দেশবাসীর প্রতি উদ্বাত্ত আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। শুক্রবার বিকেলে দলের গুলশান কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিরোধীদলীয় নেতা এ ঘোষণা দেন।

একই সঙ্গে আগামীকাল (শনিবার) বিএনপির নয়াপল্টনের সামনে থেকে বিকেল ৩টায় প্রতিবাদ মিছিল ও একই সময় সারাদেশের জেলার সদর থেকে প্রতিবাদ মিছিলের কথা বলেন তিনি। সরকারি সন্ত্রাস ও গণহত্যার প্রতিবাদে আয়োজিত এ মিছিলে সকলকে শরিক হওয়ার আহ্বান জানান খালেদা জিয়া।

বক্তব্যের শুরুতে খালেদা জিয়া বলেন, ‘আমি স্তম্ভিত। আমি ক্ষুব্ধ। আমি গভীরভাবে মর্মাহত। নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাবার কোনো ভাষা আমার নেই। আমাদের এই দেশে আবার চলছে পৈশাচিক গণহত্যা। পাখির মতো গুলি করে মানুষ হত্যা চলছে। গণহত্যার পৈশাচিক তাণ্ডবে মেতে উঠেছে সরকার।’

‘দেশে ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টির জন্য সমস্ত দায়-দায়িত্ব সরকারের—এ কথা উল্লেখ করে খালেদা জিয়া বলেন,সহিংসতায় নিহতরা গণহত্যার শিকার। এ মুহূর্তে ‘গণহত্যা বন্ধের দাবি জানিয়ে সরকারকে হুঁশিয়ার করে খালেদা জিয়া বলেন, এর পরিণাম ভয়াবহ হবে।’

খালেদা বলেন ‘আমি দেশবাসীকে এ সরকারে ঘৃণ্য গণবিরোধী কার্যকলাপের বিরুদ্ধে সচেতন ও সোর্চ্চার হওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।’

উদ্বাত্ত আহ্বান জানাচ্ছি যে কোনো মূল্যে জাতীয় ঐক্য সংহতি বজায়ে রাখার জন্য। আমি দেশবাসীকে এ সঙ্কটের মুহূর্তে রাজপথে নেমে আসার ডাক দিচ্ছি।’

চেয়ারপারসন বলেন, ‘দেশ আজ আরো ভয়ঙ্কর বিপদের দিকে ধাবিত হয়েছে। সে কারণে আমরা অনীতবিলম্বে এই রক্তপিপাসু খুনি সরকারের পদত্যাগ দাবি করছি। জনগণের গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার হীন উদ্দেশ্যে সরকার ইতোমধ্যে পরিকল্পিতভাবে ধমীয় সম্প্রদায়ের বাড়িঘরে আক্রমন চালিয়ে দেশে বিরাজমান সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ধ্বংসের অপচেষ্টা চালাচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, এরা একই উদ্দেশ্যে শান্তিপ্রিয় বৌদ্ধ ধর্মালম্বীদের ওপর হামলা চালিয়েছিল। আমি সরকারকে এমন আত্মঘাতী ষড়যন্ত্র থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দিচ্ছি। দেশবাসীকে আমি সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের যে কোনো অপচেষ্টার বিরুদ্ধে সজাগ থাকার আহ্বান জানাচ্ছি।

লিখিত বক্তব্যে খালেদা জিয়া বলেন, ‘আমি গণমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিক ভাই-বোনদের প্রতি আহ্বান জানাই, অতীতে স্বাধীনতা, গণতন্ত্র ও জনগণের স্বাধীনতা রক্ষায় আপনারা যেমন সোচ্চার ভূমিকা পালন করেছিলেন, আজ দেশ ও জাতির দুঃসময়ে ঠিক সেভাবেই জনগণের প্রকৃত আশা আকাঙ্খা ও সংগ্রামকে প্রচার ও প্রকাশ করে চলমান গণতান্ত্রিক সংগ্রামে অংশ নিন। আমরা শান্তির পক্ষে, সংঘাত সংঘর্ষ হানাহানি বিপক্ষে।’

তিনি বলেন, ‘দলমত নির্বিশেষে প্রতিটি নাগরিকের শান্তি ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করার পক্ষে আমাদের দৃঢ় অবস্থান। কাজেই সরকার যে ভয়াবহ অবস্থার দিকে দেশকে ঠেলে দিচ্ছে, গণহত্যায় মেতে উঠেছে, দেশের সর্ববৃহত দল হিসেবে আমরা নিশ্চুপ দর্শক হয়ে বসে থাকতে পারি না।’

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »