দিল্লির পাঁচ তারকা হোটেলে মার্কিন নারী ধর্ষণের শিকার

ভারতের রাজধানী দিল্লির এক পাঁচ তারকা হোটেলে একজন মার্কিন নারী পর্যটক গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার নয় মাস পর ই-মেইলে দিল্লির পুলিশের কাছে এ ব্যাপারে অভিযোগ করেছেন ওই নারী। তাঁর গাইড ও গাইডের চার বন্ধু মিলে হোটেল কক্ষে তাঁকে ধর্ষণ করেছেন বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। আজ শনিবার দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া এ খবর প্রকাশ করেছে।

খবরে বলা হয়েছে, গাইডসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে দিল্লি পুলিশকে ই-মেইল করেছেন ওই মার্কিন নারী। দিল্লি পুলিশ ইতিমধ্যে সেখানের মার্কিন দূতাবাসে যোগাযোগ করে ওই নারী সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য চেয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, অভিযোগে ওই নারী ধর্ষণের পর তাঁর মানসিকভাবে ভেঙে পড়ার কথা তুলে ধরেন। অভিযোগটি মামলা হিসেবে গ্রহণ করা হলে তিনি সাক্ষ্য দেওয়ার জন্য ভারতে আসবেন বলে ই-মেইলে জানিয়েছেন।

অভিযোগে ওই নারী বলেছেন, এ বছরের মার্চ মাসের শুরুতে তিনি পর্যটক ভিসায় ভারত আসেন এবং দিল্লির কন্নাট প্লেসের কাছাকাছি এক পাঁচ তারকা হোটেলে ওঠেন। হোটেল কর্তৃপক্ষের পরামর্শ অনুসারে এক এজেন্সির মাধ্যমে তিনি একজন পর্যটক গাইডকে ভাড়া করেন। ওই গাইড তাঁকে শহর ঘুরে দেখান। একদিন তিনি যখন হোটেল কক্ষে ছিলেন, ওই গাইড তাঁকে ঘোরাঘুরির পরবর্তী পরিকল্পনা ঠিক করার প্রস্তাব দেন এবং চার বন্ধুকে নিয়ে হোটেলে আসেন। পরে ওই পাঁচজন তাঁর কক্ষে আসেন এবং তাঁরা একসঙ্গে কিছুটা ড্রিংক করেন। একপর্যায়ে ওই গাইড ও তাঁর চার বন্ধু মিলে তাঁকে ধর্ষণ করেন।

অভিযোগে ওই নারী আরও বলেন, ওই ঘটনার পর তিনি মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েন। দ্রুত ভারত ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে আসেন। এ ঘটনার ব্যাপারে তাঁর পরিবারকেও কিছু জানাননি। প্রচণ্ড হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েন। পরে তিনি বিষয়টি তাঁর এক আইনজীবী বন্ধুকে জানান। ওই বন্ধু তাঁকে ভারত-বিষয়ক এক বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগাযোগ করিয়ে দেন। ওই প্রতিষ্ঠান তাঁকে পুলিশ কমিশনারের কাছে ই-মেইলে অভিযোগ করার পরামর্শ দেয়।

এদিকে পুলিশ জানিয়েছে, অভিযোগটি কন্নাট প্লেস পুলিশ স্টেশনে পাঠানো হয়েছে। ওই অভিযোগের ভিত্তিতে গণধর্ষণের মামলা নেওয়া হবে। পুলিশ এখন ওই গাইডকে শনাক্ত করতে হোটেলের নথিপত্র পরীক্ষা করছে। পাশাপাশি হোটেলকর্মীদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। ওই গাইড ও তাঁর বন্ধুদের খুঁজে পেতে ট্রাভেল এজেন্সির সঙ্গেও যোগাযোগ করা হয়েছে।