বার্তাবাংলা ডেস্ক »

ভোরের শীতল বাতাস জানান দেয় শীতের আগমনের। শীত এখনও পুরোপুরি না পড়লেও ত্বকের রুক্ষতা জানান দিচ্ছে শীতের। বছরের এই সময়টাতে ঠোঁট অনেক বেশি শুকিয়ে যায়; হয়ে যায় রুক্ষ ও খসখসে। তাই ঠোঁটের প্রয়োজন পড়ে বাড়তি যত্নের। যত্নের অভাবে ঠোঁট হয়ে যায় প্রাণহীন, কালচে। খুব সহজ কিছু উপায়ে প্রাণহীন ঠোঁটকে করে তুলতে পারেন সুন্দর, কোমল।

১. নারকেল তেল
নারকেল তেল ঠোঁট ময়েশ্চারাইজ করে। রাতে ঘুমানোর আগে হাতের আঙুলে নারকেল তেল নিয়ে ঠোঁটে ভালোভাবে ম্যাসাজ করুন। সকালে ঘুম থেকে উঠে দেখবেন, শুষ্কতা দূর হয়ে ঠোঁট হবে নরম ও মসৃণ।

২. পেট্রোলিয়াম জেলি
ঠোঁটের জন্য এটি বেশ সহজ ও কার্যকর একটি উপাদান। সময় পেলেই ঠোঁটে পেট্রোলিয়াম জেলি লাগান। রাতে ঘুমানোর আগে অবশ্যই এটি ব্যবহার করুন। দেখবেন, ঠোঁটের শুষ্কতা একবারে দূর হয়ে যাবে।

৩. গোলাপ জল এবং মধু
এক চা চামচ গোলাপ জল এবং এক চা চামচ মধু একটি পাত্রে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি ঠোঁটে ব্যবহার করুন। ১৫ মিনিট পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। মধু ঠোঁট ময়েশ্চারাইজ করে। এটি প্রতিদিন ব্যবহার করুন।

৪. গ্রিন টি ব্যাগ
গ্রিন টি তৈরি করার পর এর টি ব্যাগটি ফেলে দেওয়া থেকে বিরত থাকুন। এটি ঠোঁটের উপর ৪-৫ মিনিট রাখুন। এটি প্রতিদিন করুন। গ্রিন টিয়ের ব্যাগ ঠোঁটের রুক্ষতা দূর করে দেয়।

৫. অ্যালোভেরার রস
প্রতিদিন সামান্য অ্যালোভেরার রস হাতের আঙুলে নিয়ে ঠোঁটে ঘষে নিন। পাঁচ মিনিট অপেক্ষা করুন। এবার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি ঠোঁটের শুষ্কতা দূর করার পাশাপাশি উজ্জ্বলও করে।

৬. দুধের সর
দুধের সর ঠোঁটের উপর ১০ মিনিট রাখুন। তারপর ধুয়ে ফেলুন। এটি প্রতিদিন ব্যবহার করুন। দুধের সর ঠোঁটের রুক্ষতা দূর করার পাশাপাশি ঠোঁট নরম গোলাপী কোমল করে তুলবে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »