তারুণ্য ধরে রাখবে যে ৭টি খাবার

বয়স একটি প্রাকৃতিক বিষয়। সময়ের সাথে সাথে বয়স বেড়ে যায়। এটাই নিয়ম। তাই কেউ চাইলেই আজীবন তারুণ্য ধরে রাখতে পারে না। কিন্তু সবাই চায় তাকে দেখতে তরুণ লাগুক। অনেকেই বয়সের ছাপ লুকানোর জন্য দামী ক্রিম, কসমেটিক্স ব্যবহার করে থাকে। এইগুলো ব্যবহার করে সাময়িকভাবে বয়সের ছাপ চেহারা থেকে দূর করা গেলেও দীর্ঘমেয়াদি ফল লাভ করা সম্ভব হয় না।

বয়সের ছাপ মূলত দুইটা বিষয়ের ওপর নির্ভর করে। সেই বিষয় দুইটি হল জেনেটিক এবং আবহাওয়া। জেনেটিক কারণে অনেকের বয়সের ছাপ দ্রুত চেহারায় পড়ে যায়। তবে স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন এবং খাদ্যভ্যাস আপনার বয়সের ছাপ ভিতর থেকে প্রতিরোধ করতে পারে।

তবে পুষ্টিবিদরা এমন কিছু খাবারের কথা বলেছেন যে খাবারগুলো নিয়মিত খেলে বয়সের ছাপ রোধ করে। বয়সের ছাপের কারণে ত্বকে যে বলিরেখা পড়ে তা দূর করতে সাহায্য করে এই খাবার গুলো। আসুন আজ পরিচিত হই সেই সব খাবারগুলোর সাথে যে খাবার গুলো আমাদের বয়সের ছাপ লুকিয়ে তারুণ্য ধরে রাখতে সাহায্য করবে।

১. বাদাম: চেহারায় তারুণ্য ধরে রাখতে বাদামের জুড়ি নেই। বাদাম বিশেষ করে আখরোটে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড আছে যা ত্বককে মসৃণ করে ভিতর থেকে উজ্জ্বল করে থাকে। আখরোটে কোলেস্টেরলের মাত্রা খুব কম থাকে। প্রতিদিনকার খাদ্য তালিকায় আপনি রাখতে পারেন যেকোন বাদাম। সেটি আপনাকে কাজ করার এনার্জি দেওয়ার সাথে সাথে ত্বককে বলিরেখা পড়া রোধ করে।

২. টমেটো: টমেটোতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান লাইকোপেন আছে যা বিভিন্ন স্কিন রোগ প্রতিরোধ করে থাকে। এটি ত্বককে সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে রক্ষা করে থাকে।

৩. অলিভ: অলিভ অয়েল প্রতিদিনকার রান্নায় ব্যবহার করুন। এছাড়া এক টেবিলচামচ অলিভ অয়েল নিয়ে প্রতিদিন দুইবার করে ত্বকে ম্যাসাজ করুন। এটি ত্বকের শুষ্কতা দূর করে যেকোন দাগ দূর করতে সাহায্য করে থাকে।

৪. পালং শাক: পালং শাকে রয়েছে ফাইবার, পটাশিয়াম, ভিটামিন এবং মিনারেল। এতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেণ্ট পাওয়া যায় যা দেহের ফ্রির্যাডিকেল ধ্বংস করে দেয় এবং ত্বকের বয়স রোধ করে।

৫. হলুদ: হলুদে আছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি ইনফ্লামমেটরী উপাদান যা হজমশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। আর তার সাথে সাথে বয়সের ছাপ পড়া রোধ করে থাকে।

৬. ডালিম: দিনটা শুরু করুন এক গ্লাস ডালিমের রস খেয়ে। এটি আপনার ত্বকে বলিরেখা পড়া রোধ করবে। ডালিমে আছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট যা যা ত্বকের নমনীয়তা বজায় রেখে তাকে টানটান রাখতে সাহায্য করে।

৭. ব্রকোলি: ডিটক্সিফিকেশন খুবই গুরুত্বপূর্ণ উপাদান তারুণ্য উজ্জ্বল ত্বকের জন্য। ব্রকোলিতে প্রচুর পরিমাণে ডিটক্সিফিকেশন আছে যা দেহ থেকে ক্ষতিকর উপাদান বের করে দিয়ে কোষকে সতেজ রাখে। সপ্তাহে দুই বা তিন দিন খাদ্য তালিকায় ব্রকোলি রাখুন আর দেখুন ব্রকোলির জাদু।