বার্তাবাংলা ডেস্ক »

ঘরের বাগানে বা ছাদে জায়গা থাকলে আজই গিয়ে তুলসী গাছ কিনে লাগিয়ে ফেলুন টবে। স্বাস্থ্য ও রূপচর্চায় খুব কাজে দিবে তুলসীর পাতা।

ত্বকের যত্ন

১. ত্বকে ব্রণ থাকলে সেখানে তুলসী পাতা, লেবুর রস, গোলাপজল মিশিয়ে লাগাতে ববে। ১৫ মিনিট প্রতিদিন।

২. ত্বকে জ্বলাপোড়া ভাব থাকলে সেখানে তুলসী পাতা বাটা, চন্দন গুঁড়া ও ঠান্ডা পানি মিশিয়ে লাগিয়ে রাখতে হবে।

৩. ত্বকে যেকোন প্রকার দাগের উপর তুলসী পাতা বাটা ও বেসনের মিশ্রণ লাগিয়ে রাখতে হবে। এতে দাগ ধীরে ধীরে কমতে থাকে। মিশ্রণ শুকিয়ে যাওয়ার আগ পর্যন্ত লাগিয়ে রাখতে ববে।

৪. যাদের খুব ব্রণ উঠে তারা প্রতিদিন সকালে তুলসী পাতা চিবিয়ে খেতে পারে, এতে ব্রণ উঠার সম্ভাবনা কমে যাবে।

৫. ত্বকে ছিদ্র থাকলে সেখানে ডিমের সাদা অংশ ও তুলসী পাতা বাটা মিশিয়ে লাগিয়ে রাখতে হবে ২৫ মিনিট।

৬. ত্বকে কোন রোগ হলে সেখানে তুলসী পাতা প্রতিদিন লাগাতে হবে। এতে রোগ সেরে যাবে। সরিষার তেলে তুলসীর কয়েকটি পাতা দিয়ে জ্বাল দিতে ববে। তেলের রঙ গাঢ় হয়ে এলে তেল বোতলে সংরক্ষণ করতে ববে। এই তেল ত্বকে মালিশ করতে হবে প্রতিদিন।

৭. আপার লিপস বা ওয়াক্স করার পর চামড়া লাল হয়ে গেলে র‍্যাশ উঠলে সেখানে তুলসী পাতা বেটে লাগিয়ে রাখলে খুব দ্রুত সেরে যাবে।

চুলের যত্ন

১. চুলে যাদের খুব খুশকি তাদের তুলসী পাতার সাথে নারিকেল তেল মিশিয়ে গোসলের ২ ঘন্টা আগে মাথায় ভালো করে তেল লাগাতে ববে। এতে খুশকি কমে যাবে। একদিন পরপর এভাবে তেল লাগাতে হবে। তেল দিলে সেদিনই শ্যাম্পু করতে হবে।

২. চুলের উজ্জ্বলতা ও স্বাস্থ্য বজায় রাখতে প্রতি সপ্তাবে ৩/৪ দিন তুলসী পাতার রস খেতে ববে।

৩.  চুল পড়ার সমস্যা থাকলে নিজেই তেল বানিয়ে নেয়া যায়। চুলায় আধা কাপ নারিকেল তেলের সাথে ২০-২৫ টি তুলসী পাতা জ্বাল দিতে ববে ১৫ মিনিট। তেল ছেকে নিয়ে এর সাথে ১ টেবিল চামচ ক্যাস্টর অয়েল ও ১ টেবিল চামচ আমন্ড  অয়েল মেশাতে হবে। এই তেল সপ্তাবে ৩ দিন চুলে ও মাথার ত্বকে লাগাতে ববে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »