২০৩০ সালের মধ্যে বছরে ৫৫ লাখ নারী ক্যানসারে মারা যাবেন

বিশ্বে ২০৩০ সালের মধ্যে প্রতিবছর ৫৫ লাখ নারী ক্যানসারে মারা যাবেন। মঙ্গলবার আমেরিকান ক্যানসার সোসাইটি ও ওষুধ কোম্পানি মার্কের গবেষণা প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে। ‘নারীদের মধ্যে ক্যানসারের বৈশ্বিক বোঝা’ শিরোনামের এই প্রতিবেদনটি ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে ওয়ার্ল্ড ক্যানসার কংগ্রেসে উপস্থাপন করা হয়। খবর এএফপি এবং প্রথম আলো’র।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আগামী দুই দশকের কম সময়ে ক্যানসারে মৃত্যুর হার বাড়বে ৬০ শতাংশ। বৈশ্বিক জনসংখ্যা ও বয়স্ক মানুষের সংখ্যা বাড়ার পরিপ্রেক্ষিতে এই রোগে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হবে দরিদ্র ও মধ্যম আয়ের দেশের নারীদের। তবে যেসব ক্যানসারে তাঁদের মৃত্যু হবে, সেগুলোর বেশির ভাগই প্রতিরোধযোগ্য।

আমেরিকান ক্যানসার সোসাইটির বৈশ্বিক স্বাস্থ্য বিভাগের জ্যেষ্ঠ ভাইস প্রেসিডেন্ট স্যালি কোয়াল বলেন, ক্যানসারে বেশির ভাগ মৃত্যুর ঘটনা ঘটবে তরুণ ও মধ্যবয়স্ক ব্যক্তিদের মধ্যে। তিনি বলেন, এই মৃত্যুর কারণে পারিবারিক ও জাতীয় অর্থনীতিতে চাপ বাড়বে।

প্রতিবেদনের পর্যালোচনায় বলা হয়েছে, সম্পদের প্রাপ্যতার ক্ষেত্রে ব্যাপক ভৌগোলিক অসমতার জন্য ক্যানসারের বিরুদ্ধে প্রতিরোধমূলক পদক্ষেপ গ্রহণে বৈষম্য রয়ে গেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইতিমধ্যেই বিশ্বব্যাপী প্রতি সাতজন নারীর মধ্যে একজন ক্যানসারে মারা যাচ্ছেন। হৃদ্‌রোগের পর এটিই মৃত্যুর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ কারণ। সবচেয়ে মারাত্মক চারটি ক্যানসার হলো স্তন, ক্লোন, ফুসফুস ও জরায়ু ক্যানসার। এগুলোর বেশির ভাগই প্রতিরোধযোগ্য বা এসব ক্যানসার আগেই শনাক্ত করা যায়। আর আগে শনাক্ত করতে পারলে এর চিকিৎসায় সফলতা আরও বেশি পাওয়া যায়।

দরিদ্র দেশগুলোতে ক্যানসার শনাক্ত ও চিকিৎসাসেবা দেওয়ার হার ধনী দেশগুলোর তুলনায় অনেক কম। এ কারণে দরিদ্র দেশগুলোতে আক্রান্ত ব্যক্তিদের বেশির ভাগই মারা যায়। উন্নয়নশীল দেশগুলোতেও ক্যানসারে আক্রান্তের হার বাড়ছে। এর কারণ মৌলিক চিকিৎসাসেবার উন্নতি হওয়ায় এসব দেশের লোকের আয়ু বাড়ছে এবং বয়স্ক ব্যক্তিরা এই রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন।

কোয়াল বলেন, উন্নয়নশীল ও উন্নত—উভয় দেশের নারীদের ক্ষেত্রেই দ্রুত অর্থনৈতিক রূপান্তরের সঙ্গে ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বাড়ছে। অস্বাস্থ্যকর খাবার, শারীরিক নিষ্ক্রিয়তা, স্থূলতা ও প্রজননঘটিত যেমন বিলম্বিত মাতৃত্ব এর কারণ। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, অর্থনৈতিক পরিবর্তনের কারণে একসময় বর্তমানের উচ্চ আয়ের দেশগুলোতেও ক্যানসারে আক্রান্তের হার ব্যাপক ছিল।

ক্যানসার নিয়ে গবেষণা করা আন্তর্জাতিক সংস্থার মতে, ২০১২ সালে বিশ্বব্যাপী ৬৭ লাখ নারী ক্যানসারে আক্রান্ত হন এবং ৩৫ লাখ নারীর মৃত্যু হয়। এর মধ্যে ৬৪ শতাংশ মৃত্যুই ঘটে স্বল্পোন্নত দেশগুলোতে।

নতুন এই গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০৩০ সালের মধ্যে প্রতিবছর নারীদের মধ্যে ক্যানসারে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াবে ৯৯ লাখ। এর মধ্যে মারা যাবেন ৫৫ লাখ নারী।