পাকিস্তানের কোয়েটায় পুলিশ কলেজে হামলা : নিহত অন্তত ৫৯

পাকিস্তানের বেলুচিস্তান প্রদেশের কোয়েটা শহরে গতকাল সোমবার দিবাগত রাতে পুলিশের একটি প্রশিক্ষণ কলেজে জঙ্গি হামলা হয়েছে। এতে অন্তত ৫৯ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে ১১৭ জন। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

দেশটির কর্মকর্তারা বলছেন, নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে অধিকাংশই পুলিশ ক্যাডেট। এ ছাড়া নিরাপত্তারক্ষীরাও নিহত হয়েছেন। আহত ব্যক্তিদের মধ্যে অনেকের অবস্থা গুরুতর।

খবরে বলা হয়, গভীর রাতে বন্দুকধারী একাধিক ব্যক্তি কলেজের ভেতরে অবস্থিত একটি হোস্টেলে ঢুকে পড়ে। তারা নির্বিচারে গুলি ছোড়ে। বোমার বিস্ফোরণ ঘটনায়। হোস্টেলের কিছু বাসিন্দাকে তারা জিম্মি করে।

প্রাদেশিক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মির সরফরাজ বুগতি বলেন, পাঁচ থেকে ছয়জন বন্দুকধারী এই হামলা চালায়। এ সময় ক্যাডেটরা বিশ্রাম নিচ্ছিলেন বা ঘুমাচ্ছিলেন।

হামলার ২০ মিনিটের মধ্যে ঘটনাস্থলে পুলিশ, সেনাবাহিনী ও আধাসামরিক বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত হন। তাঁরা জঙ্গিদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করেন। প্রায় পাঁচ ঘণ্টা ধরে এই অভিযান চলে। এ সময় হোস্টেল থেকে ক্যাডেটদের সরিয়ে নেওয়া হয়। পরে কর্মকর্তারা অভিযান শেষ হওয়ার ঘোষণা দেন। তাঁদের ভাষ্য, অভিযানে সব জঙ্গি নিহত হয়েছে।

এখন পর্যন্ত কোনো গোষ্ঠী হামলার দায় স্বীকার করেনি।

বেলুচিস্তান সেনাবাহিনীর এক শীর্ষ কর্মকর্তার ভাষ্য, নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-জাংভি এই হামলা চালিয়ে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।