শেখ হাসিনা-ওবায়দুলকে বিএনপির অভিনন্দন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পুনরায় আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং ওবায়দুল কাদের দলের নতুন সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় তাঁদের অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, বিএনপি আশা করে গণতন্ত্র ও মানুষের অধিকার ফিরিয়ে দিতে আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক কাজ করবেন।

চলচ্চিত্র নির্মাতা প্রয়াত চাষী নজরুল ইসলামের জন্মদিন উপলক্ষে আজ রোববার বিকেলে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় কচিকাঁচা ভবন মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় অংশ নেন মির্জা ফখরুল। জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক দল এই আলোচনা সভার আয়োজন করে। এ সময় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে আওয়ামী লীগের ২০ তম জাতীয় সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনে দলের সভাপতি হিসেবে শেখ হাসিনা ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ওবায়দুল কাদেরের নাম ঘোষণা করা হয়। এ বিষয়ে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে মির্জা ফখরুল তাঁদের অভিনন্দন জানান।

এর আগে ওই আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ সম্মেলনের উৎসব করেছে। আলোকসজ্জার রেকর্ড করেছে। কিন্তু গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা, মানুষের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য আওয়ামী লীগ কী করবে তা নিয়ে কোনো বক্তব্য ছিল না। বিএনপি আশা করেছিল, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংলাপ এবং বিরোধী দলের সঙ্গে কীভাবে সমঝোতা করা যায়—তার একটি নির্দেশনা সম্মেলনে দেবেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে সেটি পাওয়া যায়নি। তাই রাজনৈতিক সংকট অনিশ্চয়তার মধ্যেই থেকে গেছে। এই অনিশ্চয়তা আরও বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

মির্জা ফখরুল অভিযোগ করেন, সারা দেশ এখন কারাগারে পরিণত হয়েছে। মানুষের কথা বলার, সংগঠন করার অধিকার হরণ করা হয়েছে। গণমাধ্যম স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারে না। এই অবস্থায় তিনি ভয়কে দূর করে সবাইকে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানান।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন চাষী নজরুলের স্ত্রী জ্যোৎস্না কাজী। অন্যদের মধ্যে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান এ জেড এম জাহিদ হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সহউপাচার্য আ ফ ম ইউসুফ হায়দার বক্তব্য দেন।